স্পেশালিষ্ট বোলার না হলেও রিয়াদের ‘পার্ট টাইম’ বোলিং বিভিন্ন সময়ে দলকে এনে দিয়েছে সাফল্য। নিউজিল্যান্ড সফরের পর থেকে স্বস্তিতে বোলিং করতে পারছেন না পঞ্চপাণ্ডবের অন্যতম ক্রিকেটার মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ।

কাঁধের চোটের কারণে দীর্ঘদিন বোলিং থেকে দূরে থাকা রিয়াদ বিশ্বকাপের আগেই ভালোমতো বল করতে সক্ষম হয়ে উঠবেন- টিম ম্যানেজমেন্ট সূত্রে জানা গিয়েছিল এমনটিই। তবে দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে টাইগারদের প্রথম ম্যাচকে সামনে রেখে অধিনায়ক মাশরাফি বিন মর্তুজা দিলেন ভিন্ন তথ্য।রিয়াদের কাছ থেকে শুধু ব্যাটিংই পাচ্ছে দল, তাই খুঁজতে হচ্ছে অতিরিক্ত স্পিনার।

তবে রিয়াদের বোলিংয়ের অভাব ঘোচাতে দলে জায়গা পেতে পারেন অতিরিক্ত স্পিনার। মাশরাফি জানান, অনুশীলনে একদিন হাত ঘুরালেও এখনো পুরোপুরি বোলিং করতে পারছেন না রিয়াদ।

মাশরাফি বলেন, ‘রিয়াদ প্র্যাকটিসে এক দিন বল করেছিল। এরপর প্রায় এক সপ্তাহ হয়েছে বোলিং করতে পারছে না। বোলিং করলে হাতে কিছু ব্যথা হচ্ছে। আমরা চাই না ওর ব্যাটিংয়ের ক্ষতি হোক। আমার কাছে মনে হয় সে বল করার জন্য প্রস্তুত আছে। তবে সে যদি মনে করে ম্যাচে দলের খারাপ সময় যাচ্ছে, বল করা প্রয়োজন- অন্যথায় রিয়াদের যে ইনজুরি আছে তাতে তার বোলিং করার সম্ভাবনা কম।’

বাড়তি স্পিনার খুঁজতে গেলে কপাল খুলে যেতে পারে মোসাদ্দেক হোসেন সৈকতের। ত্রিদেশীয় সিরিজের ফাইনাল জেতানো এই অলরাউন্ডার সাত নম্বরে দলের ঘাটতি পোষানোর দাবি জানাতে পারেন জোরেশোরেই, অন্তত সাম্প্রতিক ফর্ম বিবেচনায়। সেক্ষেত্রে কপাল পুড়বে হয়ত সাব্বির রহমানের!

মাশরাফি অবশ্য রাখলেন ধোঁয়াশা। তিনি বলেন, ‘বাড়তি স্পিনারের কথা আমরা অবশ্যই ভাবছি। ব্যাপারটা এই মুহূর্তে পরিস্কার করা কঠিন। কিন্তু আমরা ভাবছি। সাত নম্বর পজিশন নিয়েও আমাদের ভাবতে হচ্ছে। ওখানে আমরা এডিশনাল স্পিনারের কথা ভাবছি। তবে এখনো নিশ্চিত না।’

মন্তব্য: