জনপ্রিয় ক্রিকেটভিত্তিক ওয়েবসাইট ইসপিএন ক্রিকইনফোকে দেয়া এক সাক্ষাৎকারে সাকিব আল হাসানের নিষিদ্ধের ব্যাপার নিয়ে অনেক কিছুই বললেন আশরাফুল। জানালেন এমন পরিস্থিতিতে পড়ার পর মানুষের অনুভূতি কেমন হতে পারে। আর কেমন ঝড়ই বা বয়ে যাচ্ছে বিশ্বসেরা অলরাউন্ডার সাকিব আল হাসানের উপর দিয়ে।

সাকিব বিষয়ে বলতে যেয়ে একসময়ের বাংলাদেশের একমাত্র তারকা ক্রিকেটার মোহাম্মদ আশরাফুল বলেন, ‘সাকিব এখন কীসবের মধ্য দিয়ে যাচ্ছে, তা ভাষায় বর্ণনা করা কঠিন। আমি মনে করি এখন এ বিষয়ে সাকিবকে জড়িয়ে খুব বেশি খবর প্রকাশিত না হওয়াই ভালো। কারণ আমি জানি এসব খবর কতোটা প্রভাব ফেলে।’

তবে আশরাফুল এটি জানাতে ভুল করেননি যে, সাকিবের অপরাধ আর তার অপরাধ ছিল ভিন্ন। আশরাফুল সরাসরি ফিক্সিংয়ে জড়িয়ে পাঁচ বছর নিষিদ্ধ হন। আর অন্যদিকে জুয়ারির প্রস্তাব গোপন রেখে শাস্তি পেয়েছেন সাকিব। তাই দুটিকে ভিন্ন ভিন্ন ঘটনা হিসেবেই উল্লেখ করেন আশরাফুল।

তিনি বলেন, ‘আমাদের ঘটনা কিন্তু আলাদা। সে জুয়ারিদের প্রস্তাব দেয়ার কথা কর্তৃপক্ষকে জানায়নি। আর আমি ম্যাচ ফিক্সিংয়ের সঙ্গে পুরোপুরি জড়িত ছিলাম। তবে এটা আমাদের সিস্টেমের জন্যই একটা বড় ধাক্কা। আমরা ক্রিকেট খেলতে ভালোবাসি।’

আশরাফুল নিজের নিষেধাজ্ঞার সময়ের স্মৃতিচারণ করে বলেন, ‘আমি প্রথম ছয় মাস ঘুমিয়েই কাটিয়ে দিয়েছিলাম। সারা রাত টিভি দেখতাম, পরদিন দুপুরে ঘুম থেকে উঠতাম। এরপর আমি হজ্ব করে এলাম। যা আমাকে বাড়তি সাহস জোগায়। আমি সবসময় ভাবতাম, আদৌ ফিরতে পারব কি না ক্রিকেটে। কারণ তখন আমার বয়স ত্রিশ।’

তিনি আরও বলেন, ‘ক্রিকেট বোর্ড সাকিবকে সাহায্য করছে। আমিও হয়তো সমর্থন পেয়েছিলাম কিন্তু এটার সঙ্গে সাকিবের ব্যাপারটা মিলবে না। এছাড়া আমাদের মাশরাফি বিন মর্তুজার কথাও মাথায় রাখতে হবে। যে বারবার ইনজুরিতে পড়েও মাঠে ফিরেছে। আর প্রতিবার দুর্দান্ত প্রত্যাবর্তনের অতীত উদাহরণ তো রয়েছেই সাকিবের।’

মন্তব্য: