ফেব্রুয়ারী মাসে নাসিরের বিয়ের পর যে টানাপোড়েন শুরু হয় তা অনেকটাই লঙ্কাকাণ্ডের সমতূল্য। নাসিরের স্ত্রী তামিমার বিরুদ্ধে অভিযোগ ওঠে, আগের সংসারের ইতি না টেনেই নতুন করে নাসিরের সাথে বিয়ে বসেছেন তিনি। আর তাতেই সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে শুরু হয় তোলপাড়। শেষ পর্যন্ত মিডিয়ার সামনে নাসির তার স্ত্রীকে নিয়ে ঘোষণা দিতে বাধ্য হয় যে তারা কোনো ভুল করেনি এবং উপযুক্ত প্রমান রয়েছে তাদের কাছে।

তবে নতুন করে আবারও নাসির জানিয়েছেন, আগের সংসারের ইতি টেনেই স্ত্রী তামিমা নাসিরকে বিয়ে করেছেন তিনি। রবিবার (২১ মার্চ) মিরপুরে গণমাধ্যমের সাথে আলাপকালে নাসির জানান, শীঘ্রই তাদের বিয়ের বৈধতা নিরূপণে কাগজপত্র দেখানো হবে।

নাসির বলেন, ‘আমি যা-ই করেছি লিগ্যালি করেছি। হয়ত সংবাদ সম্মেলন ডেকে আপনাদের বিস্তারিত দেখিয়ে দিব। এটুকুই শুধু বলি- আমরা এতটা গাধা না যে ডিভোর্স না দিয়ে বিয়ে করব। আর কী বলবো আমি…
দেখুন, আমরা সব কাগজপত্র সেভাবে দেখাইনি। ২-৩ জন ইউটিউবার এসব নিয়ে খবর প্রচার করছে আর মানুষজন এতটাই অশিক্ষিত, একতরফাভাবে এসব শুনে মাতামাতি করছে।’

মন্তব্য: