টনটনে মহাগুরুত্বপূর্ণ ম্যাচে আজ ওয়েস্ট ইন্ডিজের মুখোমুখি হবে বাংলাদেশ। এই ম্যাচের উইকেটের চরিত্র বোঝাটাকে গুরুত্ব দিচ্ছেন মাশরাফি। আর এক্ষেত্রে অন্যদের দ্বারা প্রভাবিত না হয়ে নিজেদের পর্যবেক্ষণে জোর দেওয়ার কথা জানিয়েছেন তিনি।

নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে জয় হাতছাড়া হওয়া প্রসঙ্গে এমনটাই বলেন মাশরাফি। তার মতে নিউজিল্যান্ড ম্যাচে পিচ পর্যবেক্ষণে ভুল হয়েছিল। তার পেঠনে নিজেদের চাইতে বাইরের কথায় কান দেওয়াকেই কাঠগড়ায় দাড় করিয়েছেন তিনি। মাশরাফি খুলে না বললেও ক্রিকইনফোর অনুসন্ধানে জানা গেছে, টিম ম্যানেজমেন্টের কেউ কেউ ধারাভাষ্য শুনে প্রভাবিত হয়ে ভুল বার্তা দিয়েছিলেন। এমনকি মাঝের ওভারগুলোতে (৩১-৩৮ ওভার) ক্রিজে থাকা ব্যাটসম্যানদের মেরে খেলার বার্তাও দেওয়া হয়েছিল। তবে মাশরাফির তাতে সায় ছিল না।

রোববার (১৬ জুন) ম্যাচের আগে সংবাদ সম্মেলনে অধিনায়ক মাশরাফি বলেন, ‘আমি মনে করি দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে আমাদের হিসাব ঠিক ছিল। কিন্তু নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে যদি ওই সময় সাকিব আল হাসান আউট না হতো, নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে একই পথে যেতে পারতাম। যখন মোহাম্মদ মিঠুন এবং মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ ব্যাটিং করছিল, আমরা ঠিক পথেই এগুচ্ছিলাম। তখন ২৭০ টার্গেট করেছিলাম। কিন্তু রেডিও’র কথা শুনে পিচ নিয়ে সিদ্ধান্তে আসা কঠিন।’

মাশরাফি আরো বলেন, ‘যে দল ঠিকঠাক পিচ পর্যবেক্ষণ করতে পারবে, তারাই ম্যাচে এগিয়ে থাকবে। আমি মনে করি আমরা (ওভালে) নিউজিল্যান্ড ম্যাচে পিচ পড়তে ভুল করেছিলাম। আমরা যদি পিচ ঠিকভাবে পড়তে পারতাম তাহলে আমরা ৩০০ নয়, ২৬০-২৭০ রান টার্গেট করতাম।’

টনটনের পিচ নিয়ে তিনি বলেন, ‘টনটনের পিচ নিয়েও বিভ্রান্তি আছে। আমরা শুনেছি এটা সবুজ কিন্তু অনেকে বলছেন এটা সাধারণত ফ্ল্যাট উইকেট হয়ে থাকে। আমি মনে করি যারা মাঝে যাবে তারাই দ্রুত বুঝতে পারবে।’

এরপরই বাইরের মতামতের প্রসঙ্গে কথা বলেন মাশরাফি। তিনি জানালেন, রেডিও ধারাভাষ্যের কারণে দল বড় সংগ্রহের পথে ছুটতে চেয়েছিল। আর তাতে আগ্রাসী খেলতে গিয়ে উইকেট ছুড়ে এসেছেন ব্যাটসম্যানরা। এর ফলে ১৫১ রানে ৩ উইকেট থেকে ধস নামতে শুরু করে আর শেষে হারতে হয় ২ উইকেটে। অথচ একই ভেন্যুতে দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে আগের ম্যাচেই ৬ উইকেটে ৩৩০ রান সংগ্রহ করেছিল বাংলাদেশ।

মন্তব্য: