বিশ্বকাপে হট ফেভারিটের তকমা গায়ে লাগিয়েই বিশ্বকাপ শুরু করেছিল ভারত। তারা সেই দুর্দান্ত দাপট দেখিয়েছে গ্রুপ পর্বের খেলাতেও। পয়েন্ট টেবিলের শীর্ষ দল হয়ে নিশ্চিত করেছিল সেমিফাইনাল। তাই তো বিশ্বকাপ ঘিরে ভারতীয় ক্রিকেটপ্রেমীদের প্রত্যাশাই ছিল সবচেয়ে বেশি। বিশ্বকাপ ফাইনালের টিকিট ও তাই সব ভারতীয়দের দখলে। কিন্তু নিউজিল্যান্ডের কাছে সেমিতে পরাজয়ে টুর্নামেন্ট থেকে ছিটকে গিয়ে সমর্থকদের প্রত্যাশা পূরণ করতে পারেনি ভারতীয় ক্রিকেট দল।

এবার সমর্থকদের জন্য আরো খারাপ খবর জানাল ভারতীয় সংবাদমাধ্যম জাগরণ। ভারতীয় ক্রিকেট দলে নাকি চলছে দলাদলি। খেলায়োড় নির্বাচন ও দলাদলি নিয়ে ভিতরের অবস্থা খুব একটা ভালো নয় এমন বিস্ফোরক খবর জানিয়েছে জাগরণ।

সংবাদমাধ্যম জাগরণের মতে ভারতীয় ক্রিকেট দল এখন দুই ভাগে বিভিক্ত।একদল কোহলির অধীনে আর একদল রয়েছে সহ অধিনায়ক রোহিত শর্মার সাথে। রোহিত কোহলি দ্বন্দ্ব এ নতুন নয়। আগেও বেশ সমালোচিত হয়েছিল তাদের বোঝাপড়ার অমিলে।

ভারতীয় ক্রিকেট দলে এখন যারা কোহলির দলে আছে তারাই সবচেয়ে বেশি নিরাপদ। খারাপ করলেও দল থেকে তাদের বাদ পরার সম্ভাবনা নেই। কিন্তু রোহিতের দলের ক্রিকেটারদের কে দলে টিকতে হলে বুমরাহ, রোহিতের মত পারফর্ম করেই টিকতে হবে।

লোকেশ রাহুল কে দলে খেলানো নিয়ে পক্ষপাতিত্বের অভিযোগ উঠেছে। যদি রাহুল ওপেনিংয়ে না ভালো করে তাহলে চার নম্বর পজিশনে খেলবে। যদি চারে না ভালো খেলে তবে ১৫ সদস্যের মধ্যেই থাকবে। শুধু তাই নয় এমন আলোচনা হওয়ার শীর্ষে রয়েছে চারে খেলানোর জন্য যোগ্য ব্যাটসম্যান আম্বাতি রাইডু কে দলে না নেওয়াতে। আম্বাতি রাইডুর জায়গায় কোহলির পছন্দেই নেওয়া হয় বিজয় শঙ্কর কে। কিন্তু বিজয় শঙ্কর ইঞ্জুরিতে পরে বাদ গেলেও রাইডু কে কোনো চিন্তাতেই আনা হয় না। দলে ঢুকে ঋষভ পান্ট।আর সেজন্যই মনের রাগে ক্রিকেট থেকে অবসরের কথা জানায় ৪৯ গড়ে রান তোলা ব্যাটসম্যান রাইডু। শুধু তাই নয় দলে যখন স্পিনাররা খারাপ করে বাদ পরে শুধু কুলদীপ যাদব। যতই খারাপ করুক তবুও খেলানো হয় চাহল কে। আর সেই খেলানোর কারণ হলো আইপিএলের ব্যাঙ্গালোরের নিজ দলীয় খেলোয়াড় চাহল।

কোচ ও অধিনায়কের সঙ্গে বাকি ক্রিকেটারদের সমস্যা নিয়েও বিস্ফোরক তথ্য জানানো হয়েছে প্রতিবেদনে। দলের বেশির ভাগ ক্রিকেটার কোচিং স্টাফের প্রস্থানের অপেক্ষায়। প্রতিবেদককেই দলের এক ক্রিকেটার প্রশ্ন করেছেন, তারা কবে যাবে? বিরাট ভাই ব্যাট হাতে দুর্দান্ত করছে কিন্তু এসব কোচ (হেড ও সহকারী কোচ) আর বোলিং কোচ যাবে কবে?

মাঠে ক্রিকেটে রোহিত-কোহলির সম্পর্কের ফাটল বুঝা না গেলেও তাদের বিশ্বকাপ ব্যর্থতার প্রধান কারণ যে এসব তেমন ইঙ্গিতই দিয়েছে দেশটির সংবাদমাধ্যম জাগরণ।

মন্তব্য: