বুধবার ব্রিস্টল থেকে টন্টনে ফিরেছে দল। বৃহস্পতিবারও দলের কোনো অনুশীলন নেই। তাই নিজেদের মতো করেই সময় কাটাতে পারছেন মাশরাফি-সাকিবরা। বাংলাদেশের পরবর্তী ম্যাচ আগামী ১৭ জুন। এদিন টন্টনে ওয়েস্ট ইন্ডিজের মুখোমুখি হবে বাংলাদেশ। এই ম্যাচে মাঠে নামার আগে বেশ সময় পাচ্ছে মাশরাফিরা।

এদিকে বাংলাদেশ দলের হেড কোচ স্টিভ রোডস ক্যারিবিয়ানদের বিপক্ষে মাঠে নামার আগে ক্রিকেটের জনপ্রিয় ওয়েবসাইট ক্রিকইনফোর কাছে সাক্ষাৎকার দিয়েছেন। সেখানে তিনি বিশ্বের বড়-বড় দলগুলোর বিপক্ষে বাংলাদেশের লড়াই করার সামর্থ্যের কথা জানিয়েছেন।

রোডস বলেছেন, ‘আপনি যদি এই বিশ্বকাপের প্রতিযোগিতায় সব দলের দিকে তাকান দেখবেন কিছু বড় দলের বিপক্ষে লড়াই করেছি আমরা। তবে এটা ঠিক যে, সেই দলগুলোর গভীরতা ও মানের দিক থেকে আমরা এখনো অনেক পিছিয়ে আছি। আমাদের কিছু ক্রিকেটার আছে যারা সর্বাত্মক চেষ্টা করছে নিজেদের উন্নতির জন্য। আমাদের সেই সক্ষমতাও রয়েছে।’

বাংলাদেশ দলের অধিকাংশ সাফল্য এসেছে মাশরাফি, সাকিব, তামিম, মুশফিক ও রিয়াদদের হাত ধরে। তবে পঞ্চপান্ডবের বাইরেও এখন দলের নতুন ভরসা হয়ে উঠেছেন লিটন, সৌম্য, মিরাজরা। তাদেরকে দিয়েও যেন ম্যাচ জয় হয় সে ব্যাপারেই চেষ্টা করেছেন রোডস।

তিনি বলেন, ‘প্রধান কোচ হিসেবে প্রশিক্ষণের সময় পরিকল্পনা অনুযায়ী মাঠে ক্রিকেটারদের মাঝে তাদের দায়িত্ব বুঝিয়ে দিয়েছি। কীভাবে তারা সিদ্ধান্ত নিবে এবং নিজেরাই শিক্ষা নিয়ে নিজেদেরই তৈরি করবে। আর এ জন্যই তরুণ ক্রিকেটাররা এখন মাঠে ভালো পারফর্ম করছে। তাই সবাই আমাদের দলকে সমীহ করছে।’

চলতি বিশ্বকাপে ২৬০ রান নিয়ে শীর্ষ রান সংগ্রাহকের তালিকায় প্রথম অবস্থানে রয়েছেন। এ ব্যাপারে তিনি বলেন, ‘সাকিব দুর্দান্ত পারফর্ম করছে। আমরা ক্রিকেটারদের পারফরম্যান্সের সেই গভীরতায় পৌঁছানো চেষ্টা করে যাচ্ছি। তবে আপনি বলতে পারেন তাদের অভিজ্ঞতা অনেক কম।’

চলতি বিশ্বকাপে আফ্রিকাকে হারিয়ে আসর শুরু করে বাংলাদেশ দল। তবে পরের দুই ম্যাচে ইংল্যান্ড ও নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে হেরে বসে তারা। সবশেষ শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে বৃষ্টিতে ম্যাচ পরিত্যক্ত হওযার পয়েন্ট ভাগাভাগি করতে হয়েছে বাংলাদেশকে। বর্তমানে চার ম্যাচে ৩ পয়েন্ট নিয়ে টেবিলের সপ্তম স্থানে রয়েছে বাংলাদেশ।

মন্তব্য: