মোহাম্মদ সাইফউদ্দিন ছিলেন না অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে বিশ্বকাপে বাংলাদেশের গুরুত্বপূর্ণ ম্যাচে। এই পেস বোলিং অলরাউন্ডারের বিপক্ষে অভিযোগ উঠেছে, ইনজুরির অজুহাত দেখিয়ে অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষের ম্যাচে খেলেননি তিনি। আর এমন পরিস্থিতিতে ক্রিকেট প্রিয় বাংলাদেশিদের মনে তৈরি হয়েছে কিছু ধোঁয়াশা। তবে বাংলাদেশ দলের প্রধান কোচ স্টিভ রোডস রবিবারের সংবাদ সম্মেলনে সেই ধোঁয়াশা পরিষ্কার করে দিলেন।

প্রধান কোচের ভাষ্য মতে অজিদের বিপক্ষে ম্যাচের আগে সত্যিই চোটে ভুগছিলেন সাইফউদ্দিন। পিঠের সেই মারাত্মক চোটের কারণে বোলিং করতে পারছিলেন তিনি আর সে কারণেই তাকে বিশ্রাম দিতে বাধ্য হয় দল।

সাইফউদ্দিন ইস্যুতে গতকাল রোডস সংবাদ সম্মেলনে বলেন, ‘শারীরিক প্রসঙ্গে আসি। সে ভালো আছে। তার বিশ্রাম দরকার। পিঠের চোটে ভুগছে সে। এই কারণেই অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে খেলেনি। এটা শারীরিক ব্যাপার ছিল। সে বল করতে পারছিল না।

যে বল করতে পারছে না এমন বোলারকে তো খেলানো যায় না। তার মানসিক অবস্থা, আমার মনে হয় এটা খুবই খুবই গুরুত্বপূর্ণ ইস্যু। যে প্রতিবেদন প্রকাশিত হয়েছে সেটা অসত্য। যে মিটিংয়ের কথা লেখা হয়েছে, সেরকম কিছুই হয়নি। কারো বিশ্বাসযোগ্যতা নিয়ে প্রশ্ন তোলার আগে শতভাগ নিশ্চিত হওয়া উচিত।’

সাইফউদ্দিনকে নিয়ে সাংবাদিকরাই ধোঁয়াশা সৃষ্টি করেছিলেন আর সে কারণেই চটেছেন হেড কোচ। সাংবাদিকদের উদ্দেশ্য করে বলেছেন কারো বেপারে নিশ্চিত হয়ে তারপরই লিখুন।

‘আমার মনে হয় বাংলাদেশের বেশিরভাগ রিপোর্টার ও আমরা যারা স্টাফ আছি সবাই চাই বাংলাদেশ ভাল করুক। কিন্তু যখন কোন মিথ্যা ছড়ানো হয় তখন ওই খেলোয়াড়কে তা মানসিকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত করে, বাংলাদেশের জন্যও এটা ভালো না।

কে কি বলল সেটা ঠিক কিনা, তা নিশ্চিত হয়ে লেখা উচিত। আমি এই বিশ্বকাপ জেতার জন্য মরিয়া হয়ে আছি। এটাই চ্যালেঞ্জ। এই মোমেন্টামটাই ধরে রাখতে হবে। যদি কিছু আসে (সংবাদ) লেখার আগে নিশ্চিত হয়ে নিন মানুষ আপনাকে কি বলছে।’

মন্তব্য: