দড়জায় কড়া নাড়ছে দ্বাদশ বিশ্বকাপ। অংশ নেওয়া দশ দলের দেড় মাসের এই আসরে অনুষ্ঠিত হবে ৪৮টি ম্যাচ। এই ম্যাচের টিকিট বিক্রির কার্যক্রম চলছে। টিকিট কেনার তালিকায় ভারত ও ইংল্যান্ডের সমর্থকদের সাথে পিছিয়ে নেই বাংলাদেশিরাও।

বিশ্বকাপের স্বাগতিক দেশ ইংল্যান্ড হওয়া সত্ত্বেও সেদেশে প্রবাসী বাংলাদেশ ও ভারতীয়র সংখ্যা কম নয়। সেটা বিশ্বকাপে বাংলাদেশ ও ভারতীয় দলের ম্যাচের টিকেটের দিকে তাকালেই পরিষ্কার বোঝা যাচ্ছে। কারণ এবার বিশ্বকাপে টিকেটের চাহিদার দিক থেকে ভারত ও পাকিস্তানের ম্যাচের পরই বাংলাদেশের ম্যাচগুলির অবস্থান।

ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম দ্য সান জানিয়েছে, বাংলাদেশের ৯ ম্যাচের ৫টিতেই টিকিট বিক্রি শেষ। এই ম্যাচগুলো হলো, বাংলাদেশ-দক্ষিণ আফ্রিকা, ইংল্যান্ড-বাংলাদেশ, বাংলাদেশ-শ্রীলঙ্কা, বাংলাদেশ-ভারত ও বাংলাদেশ-পাকিস্তান।

তবে সবচেয়ে বেশি ৮ ম্যাচেরই টিকিট বিক্রি শেষ ভারতের। আর পাকিস্তানের ৬ ম্যাচের টিকিট শেষ। তবে মজার ব্যাপার ইংল্যান্ড স্বাগতিক দেশ হলেও এখন পর্যন্ত তাদের মাত্র ৪টি ম্যাচের টিকিট বিক্রি শেষ হয়েছে।

এদিকে ইংল্যান্ডের বিপক্ষে বাংলাদেশ এবং আফগানিস্তানের ম্যাচ ও আফগানিস্তানের বিপক্ষে ভারতের ম্যাচে সবচেয়ে কম খরচের টিকিটের দাম ধরা হয়েছে ৪০ পাউন্ড। তবে ইংল্যান্ড ও ভারতের বাকি ম্যাচগুলোর টিকিটের সর্বনিম্ন মূল্য ৫৫ পাউন্ড। আবার বড় ম্যাচগুলোতে এই সর্বনিম্ন মূল্যই বেড়ে হবে ৭০ পাউন্ড। বেশির ভাগ ম্যাচের অধিকাংশ টিকিটের মূল্য ১০০ পাউন্ড ছাড়িয়ে গেছে।

এর বাইরেও আইসিসি অর্ধেকের বেশি ম্যাচে ৮০ হাজার টিকিট বিক্রি করবে ২০ পাউন্ডে। আর ২ লাখ টিকিট বিক্রি হবে ৫০ পাউন্ডে। এছাড়া শিশুদের জন্য ৬ পাউন্ড করে শুরু হবে।

মন্তব্য: