ক্রিকেটে রাজনৈতিক হস্তক্ষেপ মুক্ত রাখতে না পারার কারণে ইন্টারন্যাশনাল ক্রিকেট কাউন্সিল বা আইসিসিতে জিম্বাবুয়ের সদস্যপদ স্থগিত করা হয়েছে। বৃহস্পতিবার লন্ডনে অনুষ্ঠিত বার্ষিক সভায় এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়।

আইসিসি’র তরফ থেকে সংবাদমাধ্যমকে দেওয়া এক প্রেস বিবৃতিতে জানানো হয়েছে, ‘আইসিসি’র পূর্ন সদস্য হিসেবে জিম্বাবুয়ে ক্রিকেট তাঁদের সঠিক দায়িত্ব পালনে ব্যর্থ হয়েছে। একইসঙ্গে গণতান্ত্রিক উপায়ে নির্বাচনের মাধ্যমে সরকারী হস্তক্ষেপ মুক্ত স্বচ্ছ ক্রিকেট বোর্ড গঠনে পুরোপুরি ব্যর্থ হয়েছে।’

আইসিসি’র চেয়ারম্যান শশাঙ্ক মনোহর বলেছেন, “আমাদের অবশ্যই খেলাকে রাজনৈতিক হস্তক্ষেপ মুক্ত রাখতে হবে। জিম্বাবুয়েতে যা ঘটেছে সেটি আইসিসি’র সংবিধানের গুরুতর লঙ্ঘন এবং লাগামহীনভাবে সেটি আমরা চলতে দিতে পারি না।”

উল্লেখ্য, এর আগে গত মাসে জিম্বাবুয়ে সরকার ওই দেশের পুরো ক্রিকেট বোর্ড বিলুপ্ত ঘোষণা করে একটি মধ্যবর্তী কমিটি করেছিল।
আইসিসির এই সিদ্ধান্তের কারণে জিম্বাবুয়েকে আর কোনো তহবিল প্রদান করবে না আইসিসি। এ ছাড়া আইসিসির কোনো ইভেন্টেও জিম্বাবুয়ে ক্রিকেট দল অংশ নিতে পারবে না।

এর অর্থ ২০১৯ সালে অক্টবরে অস্ট্রেলিয়ায় আয়োজিত টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের বাছাই পর্বে খেলতে পারবে না। যদিও অক্টোবরে সিদ্ধান্ত পুনর্বিবেচনার কথা জানিয়েছে আইসিসি।

মন্তব্য: