২০১৯ বিশ্বকাপের স্বাগতিক দেশ ইংল্যান্ড তাদের বিশ্বকাপের দলে তিনটি পরিবর্তন আনলো। কিছু দিন ধরে আলোচনার কেন্দ্রে থাকা জোফ্রা আর্চারকে দলে অন্তভুক্ত করেছে তারা। আর্চার ছাড়া দলে আনা অন্য দুটি পরিবর্তন হচ্ছে লিয়াম ডসন ও জেমস ভিন্স।

ওয়ানডে ও টি-টোয়েন্টি মিলিয়ে চারটি ম্যাচ খেলার অভিজ্ঞতা সম্পন্ন আর্চারের মধ্যে অমিত সম্ভাবনা দেখছে ইংল্যান্ড। ফ্ল্যাট উইকেটে একটানা ঘণ্টায় ৯০ মাইলের ওপরে বল করার সামর্থ্যের জন্য বিশ্বকাপ দলে জায়গা পাকা হয়ে আর্চারের।

ইংল্যান্ডের হয়ে আয়ারল্যান্ডর বিরুদ্ধে একটি ও পাকিস্তানের বিরুদ্ধে দু’টি ওয়ানডে খেলেছেন আর্চার৷ ব্যাট করার সুযোগ পাননি৷ তবে বল হাতে সাকুল্যে ৩টি উইকেট নিয়েছেন৷ পাকিস্তানের বিরুদ্ধে একটি আন্তর্জাতিক টি-২০ ম্যাচে ২টি উইকেট নিয়েছেন তিনি৷ স্ট্যান্ডবাই আর্চারকে ১৫ জনের চূড়ান্ত দলে জায়গা করে দিতে স্কোয়াড থেকে ছিটকে যেতে হয়েছে বাঁ-হাতি পেসার ডেভিড উইলিকে৷

জো ডেনলির জায়গায় বাঁ-হাতি স্পিনার লিয়াম ডসন সুযোগ পেয়েছেন৷ ডসন শেষবার ইংল্যান্ডের হয়ে ওয়ানডে খেলেছিলেন গত বছর অক্টোবরে৷ বোলিংয়ের পাশাপাশি তার ব্যাটের হাতও মন্দ নয় বলেই শেষ মুহূর্তে বাজিমাৎ করেন লিয়াম৷

ড্রাগ টেস্টে পজিটিভ হওয়া হেলসের জায়গায় দলে এসেছেন জেমস ভিন্স। পাকিস্তানের বিপক্ষে ৭৪ ও ৪৩ রানের ইনিংস দুটি তাকে বিশ্বকাপের দলে জায়গা করে দিয়েছে।

ইংল্যান্ডের ১৫ জনের বিশ্বকাপ দল: ইয়ন মর্গ্যান (ক্যাপ্টেন), জেসন রয়, জনি বেয়ারস্টো, জো রুট, জেমস ভিন্স, জোস বাটলার, বেন স্টোকস, মঈন আলি, আদিল রশিদ, ক্রিস ওকস, লিয়াম প্লাঙ্কেট, টম কারান, লিয়াম ডসন, জোফ্রা আর্চার ও মার্ক উড৷

মন্তব্য: