শুক্রবার নিউজিল্যান্ডের ক্রাইস্টচার্চে সন্ত্রাসী হামলার ভয়ংকর অভিজ্ঞতার মুখোমুখি হয়েছে বাংলাদেশ ক্রিকেট দল। যদিও কোন রকম অঘটন ছাড়াই এ যাত্রায় সকলেই অক্ষত অবস্থায় শনিবার রাতে দেশে ফিরছেন। তবে নিউজিল্যান্ডের ক্রাইস্টচার্চে সন্ত্রাসী হামলার পর দেশের শীর্ষস্থানীয় সংবাদমাধ্যমে কলাম লিখেছেন মাশরাফি। তাতে অন্যান্য দেশের সঙ্গে নিজেদের নিরাপত্তার পার্থক্যকে তুলে ধরেছেন তিনি।

বাংলাদেশ ওয়ানডে অধিনায়ক মাশরাফি বিন মুর্তজা মনে করেন, এ দেশ সফরে বিদেশি দলগুলো যেরকম নিরাপত্তা পায় অন্যান্য দেশে তা বিরল। এখানকার নিরাপত্তা ব্যবস্থা বিশ্বমানের। বলতে গেলে এর চেয়েও বেশি।

বাংলাদেশ সফররত ক্রিকেট দলকে বিশ্বমানের নিরাপত্তা দেওয়া কথা জানিয়ে মাশরাফি বলেন, আমাদের দেশে কোনো বিদেশি দল খেলতে এলে সম্পূর্ন নিরাপত্তা দেয়া হয়। আমাদের সরকার ও ক্রিকেট বোর্ড যে নিরাপত্তা বলয় তৈরি করে সেটি বিশ্বমানের বললেও কম হবে। আমরা সর্বোচ্চ নিরাপত্তা দিই। যেটা সাধারণত রাষ্ট্রপ্রধানদের দেয়া হয়।

এখানেই থেমে না গিয়ে মাশরাফি আরো বলেন, বিশ্বমানের নিরাপত্তা দেয়ার পরও আমাদের হাজারো কথা শুনতে হয়। সাধারণ কোনো দর্শক সফরকারী দলের টিম বাসে ঢিল ফেললেও বিশ্ব গণমাধ্যমে হইচই পড়ে যায়।

বিশ্ব শান্তিসূচকেরও প্রথমদিকে থাকা নিউজিল্যান্ডে যদি ক্রিকেটারদের এমন পরিস্থিতির মুখোমুখি হওয়া চিন্তার বিষয়। তাই ক্রিকেটারদের নিরাপত্তা নিয়ে নতুন করে চিন্তা ভাবনা করার সময় এসেছে বলে মনে করেন মাশরাফি।

তার মতামত, মাথায় রাখতে হবে নিউজিল্যান্ডের মতো দেশে এ হামলা হয়েছে। সেখানে এমন ঘৃণ্য ঘটনা ঘটবে এটা চিন্তার বাইরে। এখন আমাদের প্রতিটি সফরেই নিরাপত্তা নিয়ে ভাবতে হবে। ভবিষ্যতে ভীষণ সতর্ক থাকতে হবে।

তিনি যোগ করেন, আমরা জাতিগতভাবেই খেলাধুলা পছন্দ করি। ক্রিকেট এখন অন্য জায়গায় চলে গিয়েছে। আশা করি,এরপর সব পর্যায়ে সচেতনতা বাড়বে। মানুষ হিসেবে এমন ন্যক্কারজনক ঘটনা মেনে নেয়া ভীষণ পীড়াদায়ক।

মন্তব্য: