তিন ম্যাচ টি-টোয়েন্টি সিরিজের প্রথম ম্যাচে ভারতকে হারিয়ে শুরুটা ভালোই করেছিল বাংলাদেশ দল। তবে আজ রাজকোটের সৌরাষ্ট্র ক্রিকেট অ্যাসোসিয়েশন স্টেডিয়ামে সিরিজের দ্বিতীয় ম্যাচে বাংলাদেশকে পাত্তাই দিলোনা রোহিত শর্মার ভারত।

টস হেরে ব্যাট করতে নেমে নির্ধারিত ২০ ওভারে ৬ উইকেট হারিয়ে ১৫৩ রানের মোটামুটি চ্যালেন্জিং স্কোর গড়ে বাংলাদেশ। নিজেদের ইনিংসে ব্যাটিং করতে নেমে ভারতীয় দুই ওপেনার রোহিত শর্মা ও ডেভিড ধাওয়ান রীতিমত তাণ্ডব চালাতে থাকেন।

২৩ বলে ৬ বাউন্ডারি ও ৩ ছক্কায় হাফ সেঞ্চুরি পূরণ করেন অধিনায়ক রোহিত শর্মা। শত রানের ওপেনিং জুটি গড়ে টিম ইন্ডিয়া। তবে শেষ পর্যন্ত এই জুটি ভাঙ্গেন আমিনুল ইসলাম বিপ্লব।

বিপ্লবের বলে বোল্ড হয়ে ৩১ রান করে ধাওয়ান সাজঘরে ফিরলে জুটি ভাঙে। আমিনুলের পরের ওভারেই মিঠুনের হাতে তালুবন্ধি হয়ে হয়ে সাজঘরে ফেরেন রোহিত। তিনি ৪৩ বলে ৬ চার ও ৬ ছয়ে ৮৫ রান করে ফিরেন।

শেষ পর্যন্ত রাহুলের অপরাজিত ৮ ও আইয়ারের অপরাজিত ২৪ রানে ভর করে ১৫.৪ ওভারে ৮ উইকেটের বড় ব্যবধানে জয় পায় ভারত। এই জয়ে সিরিজে ১-১ সমতায় ফিরল ভারত।

বাংলাদেশের পক্ষে আমিনুল একই ২ উইকেট লাভ করেন। অন্যরা সকলেই খরুচে বোলিং করেন। মুস্তাফিজ ৩.৪ ওভার বল করে ৩৫ রান দেন।

আগে, টস হেরে ব্যাট করতে নামা বাংলাদেশের ইনিংসের শুরুটা ভালোই হয়েছিল। পাওয়ার-প্লের ৭.২ ওভারে বিনা উইকেটে ৬০ রান তোলে তারা। দুই দুইবার জীবন ফিরে পাওয়া লিটন দাস দলীয় ৬০ রানের মাথায় ব্যাক্তিগত ২৯ রানে আউট হলে প্রথম উইকেট হারায় বাংলাদেশ। দলীয় ৮৩ রানে মোহাম্মদ নাইম আউট হন ব্যাক্তিগত ৩৬ রানে।

আগের ম্যাচে বাংলাদেশের জয়ের নায়ক মুশফিকুর রহিম আজ ব্যার্থ হয়ে ফেরেন ৪ রানের ইনিংস খেলে। ১৩তম ওভারেই ঝড়ো ব্যাট করা সৌম্য চাহালের বলে স্টাম্পিংয়ের শিকার হন। প্যাভিলিয়নে ফেরার আগে সৌম্য ২০ বলে ২ চার ও ১ ছয়ে ৩০ রানের ইনিংস খেলেন। তখন স্কোরবোর্ডে বাংলাদেশের রান ১৩ ওভারে ৪ উইকেটে ১০৩।

বেশ দেখে-শুনে ইনিংস শুরু করলেও আফিফ হোসেনকে বেশিক্ষণ উইকেটে থাকতে দেননি খলিল আহমেদ। ৮ বল মোকাবিলায় আফিফের ব্যাট থেকে আসে ৬ রান। অধিনায়ক মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ ২১ বলে ৪ চারে ৩০ রানের ইনিংস খেলে দীপক চাহারের বলে ক্যাচ আউট হন। আর তাতেই রানের চাকা থমকে যায় বাংলাদেশের।

শেষদিকে মোসাদ্দেক-বিপ্লবের ব্যাটে আসে ১টি মাত্র বাউন্ডারি। আর তাতেই ২০ ওভার শেষে বাংলাদেশের স্কোর ১৫৩/৬।

ভারতের হয়ে চাহাল দুটি, চাহার, খলিল ও ওয়াশিংটন সুন্দর একটি করে উইকেট নেন।

অসাধারণ ব্যাটিং করে ম্যান অফ দ্যা ম্যাচ নির্বাচিত হয়েছেন ভারতের অধিনায়ক রোহিত শর্মা।

মন্তব্য: