২০১৫ সালের বিশ্বকাপের কোয়াটার ফাইনালে ভারত–বাংলাদেশ ম্যাচের পর থেকেই পাকিস্তানি আম্পয়ার আলিম দারের সঙ্গে বাংলাদেশের ক্রিকেটের সম্পর্কটা যেন স্রোতের বিপরীতমুখী। সেবার রোহিত শর্মার কোমড়ের নিচের ফুলটস বল থেকে নেওয়া ক্যাচটা নো বল দিয়েছিলেন। একই ম্যাচে মাহমুদুল্লাহকেও বাউন্ডারিতে দিয়েছিলেন বিতর্কীত আউটের সিদ্ধান্ত।

চার বছর পর ফের বিশ্বকাপ আসরে মুখোমুখি হচ্ছে বাংলাদেশ-ভারত। ২ জুলাই বার্মিংহ্যামের এজবাস্টনে মাঠের এই ম্যচটির উপর বাংলাদেশের সেফিফাইনাল খেলার সম্ভাবনা নির্ভর করছে। কিন্তু ম্যাচটিতে ভারত ছাড়াও আলিম দারের সঙ্গেও খেলতে হবে টাইগারদের।

ভারত-বাংলাদেশ ম্যাচেও মাঠের দুই আম্পায়ার হিসেবে থাকবেন পালিয়াগুরুগে ও মরিস ইরাসমাস। তবে ম্যাচের টিভি আম্পায়ারের দায়িত্বে থাকছেন আলিম দার। আলিম দারের বিষয়টি এখন বাংলাদেশি সমর্থকদের কাছে সবচেয়ে বেশি চিন্তার বিষয়।

কারণ চলতি ২০১৫ বিশ্বকাপের মতো ২০১৯ বিশ্বকাপে বাংলাদেশের বিপক্ষে টিভি আম্পয়ার থেকে আফগানিস্তান ম্যাচে দিয়েছেন বিতর্কিত আউট। সেমাবার আফগানিস্তানের বিপক্ষে আফগান স্পিনার মুজিব-উর রহমানের বলে লিটন দাসের একটি ক্যাচ নিয়ে বিতর্কের জন্ম দেন আলিম দার।

লিটনের ক্যাচটি ধরেন হযরতুল্লাহ শহিদি। টিভি রিপ্লেতে বারবার দেখা যায়- বলটা মাটি থেকে কুড়িয়ে তুলেছেন শহিদি। কিন্তু টিভি আম্পায়ার আলিম দার সেটাকে আউট বলে ঘোষণা দেন।

মন্তব্য: