টসে হেরে আজও বাংলাদেশ দলের হয়ে উদ্ধোধনী জুটিতে অনুমিত ভাবেই ব্যাট করতে আসেন তামিম ইকবাল ও সৌম্য সরকার। এদিন তামিম প্রথম ওভারে বাউন্ডারি মেরে দলের রানের খাতা খোলেন। তবে দুই ব্যাটসম্যানই দেখেবুঝে নিউজিল্যান্ড বোলারদের খেলতে থাকেন। তবে এই জুটিতে ৪৫ রানের বেশি তুলতে পারেননি তারা।

নবম ওভারে ম্যাট হেনরির করা তৃতীয় বলটিতে সরাসরি বোল্ড হন সৌম্য। ক্রিজ ছাড়ার আগে ২৫ বল থেকে ৩টি বাউন্ডারিতে ২৫ রান নিয়ে প্যাভিলনে ফেরেন সৌম্য। তার বিদায়ের পর ক্রিজে নতুন জুটি গড়তে আসেন সাকিব আল হাসান। তবে দ্বিতীয় উইকেটে তামিম সাকিবকে বেশি দূর সঙ্গ দিতে পারেননি।

দলীয় ৬০ রানে ফারগুসনের বল পুল করতে ক্রিজে ক্যাচ আউট হন তিনি। ৩৮ বল থেকে ৩টি বাউন্ডারিতে ২৪ রান করেন তামিম।

বাংলাদেশ দলের ওপেনার জুটি তামিম সৌম্য আউট হওয়ার পর দলের হাল ধরেন সাকিব মুশফিক জুটি। ৫০ রানের এই জুটি ভালোই চালিয়ে নিচ্ছিলেন রান তোলাটা। কিন্তু দলীয় ২৩.৫ ওভারে সান্টনারের বলে রান আউটের শিকার হলেন মুশফিকুর রাহিম। ৩৫ বল খেলে দুই বাউন্ডারিতে ১৯ রান করতে সক্ষম হন মুশফিক।

মুশফিক আউট হলে মাঠে নামেন মোহাম্মদ মিঠুন। শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত ২৮ ওভারে ৩ উইকেটে ১৩৭ রান করতে পেরেছে টাইগাররা। সাকিব ৫৬ বলে ৫ বাউন্ডারিতে ৫১ ও মিঠুন ১৪ বলে ১০ রান নিয়ে ক্রিজে আছেন।

খোলেন

মন্তব্য: