বিপিএলের সপ্তম আসর মাঠে গড়াচ্ছে ডিসেম্বরে। এই আসরে ঢাকা ডায়নাইমাইটস ছেড়ে রংপুর রাইডার্সের সঙ্গে চুক্তি করেছেন সাকিব আল হাসান। তার এমন সিদ্ধান্ত সকলকে অবাক করেছে। তাই এটি নিয়ে শুরু হয় চর্চা।

বিপিএলের চতুর্থ থেকে ষষ্ঠ এই তিন আসরে ঢাকা ডায়নামাইটসের আইকন ক্রিকেটার ছিলেন সাকিব। যেখানে চতুর্থ আসরেই ঢাকাকে নেতৃত্ব শিরোপা এনে দেন তিনি। পরের দুই আসরে তার নেতৃত্বেই দলটি ফাইনাল খেলেছে। সুতরাং বোঝাই যাচ্ছে সাকিব দলটির জন্য ট্রাম কার্ড ছিলেন।

তবে সপ্তম আসরকে সামনে রেখে সাকিব অনেকটা চুপি সারেই রংপুরের সঙ্গে চুক্তি করেন। তবে সাকিবের এমন সিদ্ধান্তে অসন্তুষ্ট হয় ঢাকা। তারা বিপিএল বিপিএল গভর্নিং কাউন্সিলের কাছে অভিযোগ জানায়, ফ্র্যাঞ্চাইজিদের সঙ্গে বিবিএল কমিটির নেতুন চুক্তির আগে ক্রিকেটারদের চুক্তি হওয়ার বিষয়টি।

এদিকে সাকিব কেন ঢাকা ফ্রাঞ্চাইজি ছাড়লেন সেটি নিয়ে শুরু হয়েছে জলঘোলা। সকলেই ধারণা করছেন ঢাকার চেয়ে রংপুর দলে বেশি টাকা অফার থাকায় সাকিব হয়েতো নতুন চুক্তি করেছেন। তবে এটি একটি কারণ বটে। তবে আসল ঘটনা অন্য জায়গায়।

শোনা যাচ্ছে বিপিএল সপ্তম আসরে ঢাকা নিজেদের দলের ভেড়াতে যাচ্ছে ইংল্যান্ডের বিশ্বকাপ জয়ী অধিনায়ক ইয়ন মরগ্যানকে। দলটির কোচ খালেদ মাহমুদ সুজন একটি সংবাদ মাধ্যমে বিষয়টি নিশ্চিতও করেছেন। বিশ্বকাপ জয়ের পর মরগান ঢাকায় যোগ দিলে ঢাকার ফ্র্যাঞ্চাইজি তথা মালিকরা নিশ্চয়ই মরগ্যানকেই অধিনায়কত্বের দায়িত্ব তুলে দেবেন।

এদিকে বাংলাদেশ দলের টেস্ট ও টি-টোয়েন্টি দলের অধিনায়ক সাকিব সেটা আন্দাজ করতে পেরেছেন। তাই তিনি ঢাকা ডায়নামাইটস ছেড়ে রংপুর রাইডার্সে যোগ দিয়েছেন। কারণ রংপুরে গেইল, এবি ডি ভিলিয়ার্সের মত অনেক নামীদামি তারকা খেললেও তার কেউই নেতৃত্ব পাওয়ার দিকে থেকে সাকিবের চাইতে এগিয়ে থাকবেন না। কারণ সাকিব নেতৃত্ব দিয়ে ঢাকাকে চ্যাম্পিয়ন করার উদাহরণ রয়েছে।

মন্তব্য: