সাফ অনূর্ধ্ব-১৫ চ্যাম্পিয়নশিপ ফুটবলে বাংলাদেশ দল ফের প্রতিপক্ষ দলকে গোল বন্যায় ভাসালো। নিজেদের প্রথম ম্যাচে ভুটানকে ৫-২ গোলে উড়িয়ে দেওয়া বাংলাদেশ এবার শ্রীলঙ্কাকে ৭-১ গোলের লজ্জায়র ডেবালো। এই জয়ের ফাইনালে খেলার পথটা আরো সুগম হলো ডিফেন্ডিং চ্যাম্পিয়নদের।

রোববার (২৩ আগস্ট) দুপুর সাড়ে ১২টায় অনুষ্ঠিত ভারতের পশ্চিম বাংলার কল্যাণী স্টেডিয়ামে লড়াইয়ে নামে বাংলাদেশ ও শ্রীলঙ্কা। প্রথম থেকেই বাংলাদেশের যুবারা প্রতিপক্ষ শিবিরে আক্রমণ চালাতে থাকে। সফলতা ধরা দেয় ম্যাচের ৩২তম মিনিটে। আল আমিন রহমান এ সময় বাংলাদেশকে প্রথম লিড এনে দেন।

১০ মিনিটের ব্যবধানে ব্যবধান দ্বিগুন করেন রকিবুল ইসলাম। প্রতিপক্ষের ফুটবলার থেকে মাঝ মাঠ থেকে বল নিয়ে চারজনকে কাটিয়ে দুর্দান্ত গোল করেন তিনি।

ম্যাচের ৪৪ মিনিটে সতীর্থের কাছ থেকে বল পেয়ে নিজের দ্বিতীয় গোল তুলে নেন আল আমিন। প্রথমার্থে বাকি সময় আর কোনো গোল না হওয়ায় ৩-০ লিড নিয়ে বিরতিতে যায় বাংলাদেশের যুবারা।

বিরতি থেকে ফিরে গোল উৎসবে মেতে ওঠে লাল-সবুজদের কিশোররা। ৪৮ মিনিটে হেডে দলের চতুর্থ গোলটি করেন আগের ম্যাচে জোড়া গোল করা ফরোয়ার্ড আল মিরাদ। দুই মিনিট বাদে শ্রীলঙ্কার মিহরান এক গোল শোধ দেন।

ম্যাচের ৫৯ মিনিটে পেনাল্টি থেকে হ্যাটট্রিক পূর্ণ করেন আল আমিন। ৭১ মিনিটে করেন নিজের চতুর্থ গোল। দুই ম্যাচে এরইমধ্যে ৫ গোল করে উঠে গেছেন গোলদাতাদের শীর্ষ তালিকায়।

পরে ৬৭ মিনিটে বদলি ফরোয়ার্ড রাব্বি হোসেন বাংলাদেশের হয়ে যোগ করেছেন আরেকটি গোল। কিছুক্ষণ বাদেই দলের সপ্তম ও নিজের সপ্তম গোলটি করে শ্রীলঙ্কার কফিনে শেষ পেরেক ঠুকে দেন আল আমিন। ফলে ৭-১ গোলের জয় যায় বাংলাদেশ অনূর্ধ্ব-১৫ দল। আর টানা দুই ম্যাচে হেরে ফাইনাল খেলার স্বপ্নটা ফিকে হয়ে যায় শ্রীলঙ্কার।

আগামী ২৭ আগস্ট লিগ পর্বের শেষ ম্যাচে নেপালের মুখোমুখি হবে বাংলাদেশ। ৩১ আগস্ট লিগ ভিত্তিতে সর্বোচ্চ পয়েন্ট পাওয়া দুই দল ফাইনালে মোকাবিলা করবে।

মন্তব্য: