যুবরাজ সিংয়ের বাবা যোগরাজ সিং ধোনিকে নিয়ে সমালোচনা করছেন এটাই প্রথম নয়, এরকম নজির আরো আছে। তাই এমন দৃশ্য ভারতীর ক্রিকেট মহলে বেশ পরিচিত।

নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে সেমিফাইনালে পরাজয়ের জন্য ধোনিকে দোষ দিলেন তিনি। বলেছেন এতক্ষণ ধোনির উইকেটে না থেকে আরো আগেই আউট হয়ে যাওয়া উচিত ছিলো।

প্রথম পাওয়ার প্লে তে ১০ ওভারে ২৪ রানে ৪ উইকেট হারিয়েই ম্যাচের লাগাম হারিয়েছিল ভারত। হারের সম্ভাবনা অনেকটাই নিশ্চিত হয়ে যায় ১০০ রানের মধ্যে ৬ উইকেট পরে গেলে।ঠিক সেই সময়ে ধোনি জাদেজা চেষ্টা করেছেন দলকে ম্যাচে ফেরাতে।তাদের ১০৫ রানের ১১৬ রানের জুটির কল্যাণেই ম্যাচ জয়ের আশা পেয়েছিল ভারতীয় সমর্থকরা।

জাদেজা দ্রুতগতিতে রান তুলেছেন বটে, কিন্তু অপর পাশ থেকে তাঁকে দিকনির্দেশনা দিয়েছেন ধোনিই। সৌরভ গাঙ্গুলী-ভিভিএস লক্ষ্মণদের মতো কিংবদন্তিরা বলেছেন, ধোনিকে আরও আগে নামালে ম্যাচটা ভারতই জিতত।কিন্তু সেদিন অভিজ্ঞ ধোনিকে নামানো হয়েছিল সাত নম্বর ব্যাটিং পজিশনে।কিন্তু যোগরাজ সিং উল্টো ধোনিকেই দোষারোপ করেছেন।

জাদেজা যেখানে উইকেটে আসার পর থেকেই মারমুখী ছিলেন, ধোনি সেখানে অনেকটাই ধীরেসুস্থে ব্যাটিং করছিলেন। জাদেজা আউট হওয়ার পরই কেবল হাত খোলার চেষ্টা করেছিলেন, কিন্তু দলকে ফাইনালে তুলতে পারেননি। ইনিংসের শুরুর দিকে ধোনির ব্যাটিংয়ের ধরন নিয়েই জানতে চাওয়া হয়েছিল যোগরাজ সিংয়ের কাছে। উত্তরে ধোনির প্রতি নিজের ক্ষোভ লুকানোর কোনো চেষ্টাই করেননি তিনি। জাদেজা-পান্ডিয়াদের মারার লাইসেন্স দিয়ে ধোনি নিজে এক প্রান্ত আগলে ধরে রেখেছিলেন, এ কারণেই ধোনির প্রতি ক্ষোভ তাঁর, ‘একটা ছেলে (জাদেজা) উইকেটে এসেই কোনো চাপ ছাড়া মারতে শুরু করল। আপনি (ধোনি) অপর প্রান্তে ব্যাটিং করছেন। আপনার সঙ্গী ৭৭ রানে অপরাজিত, অথচ আপনি আপনার সঙ্গীকেই বলছেন মেরে খেলতে। এর আগে হার্দিক পান্ডিয়াকেও স্পিনারদের ওপর চড়াও হওয়ার জন্য বলেছিলেন।’

এতক্ষণ ধোনির নাম উচ্চারণ না করলেও এরপর আর কোনো রাখঢাক রাখেননি ভারতের হয়ে একটি টেস্ট ও ছয় ওয়ানডে খেলা যোগরাজ, ‘জনাব মহেন্দ্র সিং ধোনি, আপনি এত বছর ধরে ক্রিকেট খেলছেন। আপনার কি এখনো এই বোধটুকু জন্মায়নি কী করতে হবে আর কী করতে হবে না? আপনি যেভাবে অন্য খেলোয়াড়দের শট খেলার নির্দেশনা দিচ্ছিলেন, যুবরাজ কি কখনো তা করেছে? আপনি তো এত বড় বড় ছয় মারতে পারেন। সেদিন এতগুলো হাফভলি পেলেন, তখন আপনার কী হয়েছিল? আপনি কি দুশ্চিন্তায় ভুগছিলেন? তাহলে তো আপনার আগেই আউট হয়ে যাওয়া উচিত ছিল। আপনি আউট হয়ে গেলে কী ম্যাচের ফলে কোনো পার্থক্য হতো?’

এর আগে যোগরাজ সিং অভিযোগ তুলেছিলেন ধোনির জন্যই ক্যাপ্টেন হতে পারিনি যুবরাজ সিং। আর দল থেকে যুবরাজ কে বাদ দেওয়া হয়েছে ও ধোনির জন্যই।

মন্তব্য: