চলতি বিশ্বকাপে ফেভারিট হিসেবে আসর শুরু করেছিল অস্ট্রেলিয়া, নিউজিল্যান্ড, ভারত ও স্বাগতিক ইংল্যান্ড। এই চারটি দলই সেমিফাইনালে খেলার মুখ্য দাবিদার ছিল। কিন্তু গ্রুপ পর্বের লড়াইয়ে চার ভাগের তিন ভাগের খেলা যখন শেষ তখন দেখা যাচ্ছে ইংল্যান্ড বাদে অন্য তিনটি দল সেমিফাইনালে জায়গা পাচ্ছে।

তবে ইংল্যান্ডের জন্য সমীকরণ এখন শেষ দুটি ম্যাচে ভারত ও নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে জিততে হবে। ইংল্যান্ড বিশ্বকাপের আসরে তাদের শেষ দুই ম্যাচে মুখোমুখি হবে এখন পর্যন্ত অপরাজিত ভারত ও নিউজিল্যান্ডের সাথে।

বিশ্বকাপের ১২ তম আসরে এখন পর্যন্ত অপরাজিত থাকা ভারত ও নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে ইংল্যান্ডের জন্য ম্যাচ জেতাটা সত্যিই কঠিন হবে। বলা যেতে পারে ম্যাচ দুটিতে ইংলিশদের হারার সম্ভবনাই বেশি৷ ইংল্যান্ডের এমন সমীকরণে আশা দেখছে বাংলাদেশ ও পাকিস্তান। চলুন জেনে নেওয়া যাক বিশ্বকাপে সেমিফাইনাল খেলার জন্য পাকিস্তান ও বাংলাদেশের মধ্যকার যত সমীকরণ।

পাকিস্তান সমীকরণ

নিজেদের শেষ ম্যাচে বাবরের সেঞ্চুরিতে নিউজিল্যান্ডকে হারিয়ে দিয়ে সেমির আশা টিকিয়ে রেখেছে পাকিস্তান। এখন পর্যন্ত ৭ ম্যাচ খেলে বাংলাদেশের সমান ৭ পয়েন্ট নিয়ে পয়েন্ট তালিকার ষষ্ঠ স্থানে বাংলাদেশের ঠিক পেছনে অবস্থান করছে পাকিরা।

পাকিস্তান নিজেদের অষ্টম ম্যাচে মাঠে নামবে অপেক্ষাকৃত দুর্বল প্রতিপক্ষ এবং বিশ্বকাপ আসরে এখন পর্যন্ত একটি ম্যাচেও জিততে না পারা আফগানিস্তানের সাথে। আফগানদের সাথে জিতে গেলে পাকিদের পয়েন্ট হবে ৯। সেক্ষেত্রে বাংলাদেশের কাছে নিজেদের শেষ ম্যাচটি হেরে গেলে এবং ইংল্যান্ড যদি কোনো ম্যাচ না জিততে বা না ড্র করতে পারে তাহলে সেমিফাইনালে যাওয়ার সম্ভাবনা থাকবে পাকিস্তানের। তখন বাংলাদেশের সঙ্গে তাদের নিট রান রেট হিসেব করা হবে।

বাংলাদেশ সমীকরণ

বাংলাদেশ ভারতের সাথে যদি হেরে যায় ও পাকিস্তানের সাথে জিতে যায় তাহলে টাইগারদের পয়েন্ট হবে ৯ ৷ অন্য দিকে পাকিস্তান বাংলাদেশের সাথে হেরে গেলে ও আফগানিস্তানের সাথে জিতে গেলে তাদের পয়েন্টও হবে ৯। তখন রান রেটের বিচারে পাকিস্তানের চেয়ে এগিয়ে থেকে সেমিফাইনালে জায়গা পাবে বাংলাদেশ ৷

লড়াইয়ে থাকবে বাংলাদেশ, পাকিস্তান, ইংল্যান্ড

অন্যদিকে ৪র্থ টিম হিসেবে শ্রীলঙ্কারও সেমিফাইনালে জায়গা করে নেয়ার সম্ভবনা রয়েছে। তবে, নিজেদের শেষ ম্যাচে গতকাল দক্ষিণ আফ্রিকার কাছে ৯ উইকেটে বিদ্ধস্ত হয়ে ৭ ম্যাচে ৬ পয়েন্ট নিয়ে পয়েন্ট টেবিলের ৭ নম্বরে রয়েছে তারা। নিজেদের শেষ দুই ম্যাচে ওয়েস্ট ইন্ডিজ ও ভারতের মুখোমুখি হবে তারা। লংকানদের বর্তমান অবস্থা বিবেচনায় এই দল দুটির সঙ্গে তাদের জয়ের সম্ভাবনা খুব কম।

মন্তব্য: