আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে দারুণ মাইল ফলক গড়লেন সাকিব আল হাসান। দ্বিতীয় বাংলাদেশি হিসেবে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে ১১০০০ রানের মাইল ফলক গড়েছেন তিনি।

ওয়ানডে, টি-টোয়েন্টি ও টেস্ট এই তিন ফরম্যাট মিলিয়ে ১১ হাজার রানের মাইলফলক স্পর্শ করেছেন সাকিব আল হাসান। এই ম্যাচে মাঠে নামার আগে ১১ হাজারি ক্লাব থেকে ৬ রান পেছনে ছিলেন। দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে খেলতে নেমে এই মাইলফলক স্পর্শ করেছেন তিনি।

বরং তিনি খেলে বেড়িয়েছেন বিশ্বের প্রায় সকল প্রভাবশালী ফ্র্যাঞ্চাইজি লীগের হয়ে। সাথে কুড়িয়েছেন অভাবনীয় সুনাম এবং প্রচুর সমর্থক। বিশেষ করে আইপিএলের কল্যানে ভারতে রয়েছে তার প্রচুর ভক্ত সমর্থক।বাংলাদেশের পোস্টার বয় সাকিব আল হাসান শুধু মাত্র বাংলাদেশের হয়েই মাঠ মাতান না।

সাকিব আল হাসান শুধু ব্যাটেও নয়, বলেও রয়েছে তার সমান পারদর্শিতা। আর একটি উইকেট পেলেই সাকিবের ঝুলিতে যোগ হবে ২৫০ উইকেটের মাইল ফলক।

বিশ্বকাপের আগে দিয়েই রাশিদ খানকে পিছনে ফেলে আবার নিজের এক নাম্বার জায়গা ফিরে পান তিনি। দেশ সেরা প্লেয়ার সাকিব আল হাসান ২০০৯ সাল থেকে আইসিসির এক নাম্বার অলরাউন্ডার হিসেবে আছেন প্রায় বেশীর ভাগ সময় ধরেই।

আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে জ্যাক ক্যালিস, শহীদ আফ্রিদির পরেই ১১ হাজার রান আর ৫৮০ উইকেট সংগ্রাহক হিসেবে আছেন সাকিব আল হাসান। ওপেনার তামিম ইকবাল খান প্রথম বাংলাদেশি হিসেবে ১১ হাজার রানের ক্লাবে প্রবেশ করেন ।

মন্তব্য: