২০০২ বিশ্বকাপে জার্মানির বিপক্ষে ফাইনালের আগে অদ্ভুতুড়ে চুলের ছাঁট দিতেন ব্রাজিলীয় কিংবদন্তি স্ট্রাইকার রোনালদো। আর তাকে অনুকরণ করে অনেক শিশুই এমন অদ্ভুত চুলের কাট দিয়েছিল।

২০ বছর পরে নিজের সেই অদ্ভুতুড়ে চুলের ছাঁটের জন্য ‘সব মায়ের’ কাছে ক্ষমা চাইলেন এ কিংবদন্তি।

রোনালদো বলেন, ওই হেয়ার স্টাইলে আমাকে একদমই ভালো দেখায়নি। আমি সেসব মায়ের কাছে ক্ষমা চাইছি যাদের ছেলে আমার মতো সেই চুলের ছাঁট করিয়েছিল। যা দেখতে ভয়াবহ কুৎসিত ছিল। অবশ্য রোনালদোর সেই হেয়ার স্টাইলটিও ছিল অদ্ভুত ও হাস্যকর। কপালের উপরটা জুড়ে চুল রেখে মাথার বাকিটুকু ন্যাড়া করেছিলেন তিনি। সেই ছাঁট নজর কেড়েছিল সবার।

রোনালদো তার এই অদ্ভুত চুলের কাট সর্ম্পকে জানালেন গোপন এক তথ্য। এর কারণ জানিয়ে বললেন, তার পায়ের চোট নিয়ে সংবাদ মাধ্যমের নজর সরাতে ইচ্ছা করে পরিবর্তন এনেছিলেন চুলের ছাঁটে। আমি অনুশীলনে আসি এবং সবাই আমাকে চুলের এই বাজে অবস্থা দেখে। সবাই চুল নিয়ে কথা বলছিল এবং চোটের ব্যাপারটা ভুলে গিয়েছিল। আমি আরও শান্ত ও চাপমুক্ত থাকতে পারলাম। আমি আমার অনুশীলনে নজর দিলাম।

এনএইচ২৪/জেএস/২০২১

মন্তব্য: