সমালোচনার ঝড় বইতে শুরু করে পাকিস্তানজুড়ে। কেননা পাকিস্তান সুপার লিগের (পিএসএল) সর্বশেষ আসরে দুর্দান্ত পারফরমেন্স করেছেন এই দুই বোলার। দেশটির সমর্থকদের মতে, ইংল্যান্ডের মাঠে রিয়াজের বোলিং খুবই কার্যকর হতে পারে।পাকিস্তানের ঘোষিত হওয়া বিশ্বকাপ দলে প্রথমে ছিলেন না পেস বোলার ওয়াহাব রিয়াজ এবং মোহাম্মদ আমির।

বিশ্বকাপে পাকিস্তানের হয়ে প্রথম ম্যাচেই একাদশে সুযোগ পেয়ে যান তারা দু’জন। তবে প্রথম ম্যাচে মোহাম্মদ আমির ভালো করলেও খুব একটা ভালো করতে পারেননি ওয়াহাব রিয়াজ। কেননা ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে প্রথমে ব্যাট করতে নেমে মাত্র ১০৫ রানে অলআউট হয়ে যায় পাকিস্তানরা। ক্যারিবিয়ানদের এই লক্ষ্যে আটকাতে কোন প্রভাব বিস্তার করতে পারেননি এই পেস বোলার।অবশেষে ঘোষিত হওয়া পরিবর্তিত দলে জায়গা করে নিয়েছেন রিয়াজ এবং আমির।

তবে দ্বিতীয় ম্যাচেই জ্বলে উঠেছেন রিয়াজ। টসে হেরে ব্যাট করা পাকিস্তানের ছুঁড়ে দেয়া ৩৪৯ রানের লক্ষ্যে ব্যাট করছে ইংল্যান্ড। নিজের দ্বিতীয় ওভারেই ব্রেক থ্রু এনে দেন ওয়াহাব। দারুন এক ডেলিভারিতে ইংলিশ ওপেনার জনি বেয়ারস্টোকে অধিনায়ক সরফরাজ আহমেদের হাতে ক্যাচে পরিণত করেন তিনি।

বিশ্বকাপের আগে দলের হয়ে সর্বশেষ ম্যাচটি খেলেন ২০১৭ সালের চ্যাম্পিয়নস ট্রফির গ্রুপ পর্বে ভারতের বিপক্ষে। ওই ম্যাচের পর আর দলে ফেরার সুযোগই পাননি এই বাঁ-হাতি পেসার। ৭৮৭ দিন পর ওয়ানডে ক্রিকেটে উইকেট নিলেন রিয়াজ। কারণ গত দুই বছর ধরেই পাকিস্তান দলে অনিয়মিত তিনি।

মন্তব্য: