শেষ পর্যন্ত কোচিংয়ের খাতায় নাম লিখিয়েই ফেললেন বাংলাদেশ ওয়ানডে ক্রিকেট দলের সাবেক অধিনায়ক মাশরাফি বিন মর্তুজা! আজ বৃহস্পতিবার(৩০ সেপ্টেম্বর) নতুন চেহারায় দেখা মিললো নড়াইল এক্সপ্রেসের। অবাক হবার মতোই ব্যাপার বটে। যেখানে মাশরাফি এখনও খেলাই ছাড়েননি, তাহলে তিনি বোলিং কোচ হলেন কিভাবে?

আসল ঘটনা হলো অনুজপ্রতিম পেসার তাসকিন আহমেদের অনুরোধেই বোলিং কোচের ভূমিকায় নেমেছেন জাতীয় দলের সাবেক এই অধিনায়ক। সম্প্রতি নিজের গতির পারফরমেন্সে সন্তুষ্ট হলেও নিজের স্লোয়ার ডেলিভারিটা উন্নত করতে চাচ্ছেন তাসকিন। আর তাই প্রিয় ‘মাশরাফি ভাইয়ের’ শরণাপন্ন হয়েছেন তিনি।

প্রিয় মাশরাফির কাছ থেকে স্লোয়ারের টিপস পেয়ে তাসকিন খুব খুশি। বললেন, ‘ব্যস্ততার মাঝে মাশরাফি ভাই আমাকে সময় দিয়েছেন, এটাই অনেক।’

উপস্থিত সাংবাদিকদের কাছে নিজের প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত করতে গিয়ে তাসকিন বলেন, ‘ভাইয়াকে (মাশরাফি) বলছিলাম একদিন সময় দেওয়ার জন্য। কারণ আমার আসলে পেস, সুইং এগুলো উন্নতি হচ্ছে কিন্তু স্লোয়ারের দিক থেকে একটু পেছানো। স্লোয়ার ডেলিভারি উন্নতি করতে চাই। ভাইয়াকে বলতাম। ভাইয়া এসে কিছু গ্রিপ দেখালো যে, একেকজনের একেকরকম অ্যাকশন হয়। এগুলো একটু চেষ্টা করে দেখতে পারো। আমার কাছে ভালো লাগলো কিছু কাটারের গ্রুপ দেখিয়েছে। আশা করি, এগুলো প্রয়োগ করলে ফল হবে।’

মাশরাফি তাকে স্লোয়ার ডেলিভারি ছোড়ার কয়টি গ্রিপ দেখিয়েছেন, তাও জানালেন তাসকিন আহমেদ। বাংলাদেশ ক্রিকেট দলের ডান হাতি এই পেসার বলেন, ‘মূলত দু-তিনটি গ্রিপ দেখিয়েছেন। বলেছেন, একসঙ্গে এত কিছু নিয়ে তো কাজ করা যাবে না। যেহেতু সামনেই অনেক খেলা, আপাতত কাটার ট্রাই করতে বলেছেন। ওইটাই দেখালেন। বললেন, যদি ভালো লাগে এটা কন্টিনিউ করতে পার। এটা আয়ত্তে এলে আরেকটা।’

তাসকিন যোগ করেন, ‘আমার স্লোয়ার অন্যদের থেকে একটু দুর্বল। তবে আজ মাশরাফি ভাই যে গ্রিপ দেখিয়েছেন, এগুলো আগেরগুলোর থেকে ভিন্ন।’