আয়ারল্যান্ডে ত্রিদেশীয় সিরিজে টাইগারদের পারফরম্যান্স দেখে বেজে খুশি টাইগার দলের প্রধান কোচ স্টিভ রোড। তবে বিশেষ করে তরুণ টাইগারদের উপর সন্তুষ্টির পরিমান একটু বেশিই। তাছাড়াও ত্রিদেশীয় ফাইনালে মোসাদ্দেকের অনবদ্য ইনিংসের প্রশংসা করেছেন রোডস।

ত্রিদেশীয় সিরিজে প্রথম বারের মতো দলকে শিরোপার স্বাদ দিয়েছেন মোসাদ্দেক। তার ঝড়ো ইনিংসে এবং সাথে সৌম্য সরকারের রানের বন্যায় ইনিংসে জয় তুলে নেয় বাংলাদেশ। তাতে বিশ্লেষণ করলে দেখা যায় ফাইনালের ম্যাচে ছিলেন সাকিব। তারপর দলের পঞ্চপান্ডব খ্যাত তামিম, মুশফিক, মাশরাফি, সাকিব ও মাহমুদউল্লাহ রিয়াদের পারফরমেন্স তেমন একটা ছিল না। সব মিলিয়ে স্টিভ রোডস এখন পঞ্চ পাণ্ডবের উপর নির্ভরশীল থাকতে নারাজ। তিনি বলেন, তরুণ ক্রিকেটাররাও দেখিয়েছে তারাও দায়িত্ব নিতে জানে।

রোডস বলেন “তরুণরা এগিয়ে এসে প্রমাণ করেছে যে আমাদের স্কোয়াডটাই আসলে শক্তিশালী। আমরা যেটা চাচ্ছিলাম, তা হলো স্কোয়াডে পারফরমারদের গভীরতা। আর এটি সম্ভব হলেই মানুষ হয়তো সিনিয়র পাঁচের সঙ্গে অন্যদের ব্যাপারে কথা বলতে শুরু করবে।”

ফাইনালে বাংলাদেশ দলের জয়ের ভীতটা গড়ে দিয়েছিলো সৌম্য-মুশফিক জুটি। দুইজনেই বেশ আক্রমণাত্মক ব্যাটিং করেন। তবে দুইজনে ভালো ইনিংস পেয়েও ম্যাচ শেষ করে আসতে পারেনি। শেষদিকে মোসাদ্দেকের ঝড়ো ফিফটি দলকে শিরোপা এনে দিয়েছে। তাই তো মোসাদ্দেকের প্রশংসায় পঞ্চমুখ রোডস।

“ফাইনাল ম্যাচটিতে রান তাড়া খুবই দুর্দান্ত ছিল। দুই-তিনজন খেলোয়াড় অসাধারণ ইনিংস খেলেছে। আপনি মোসাদ্দেককে উদাহরণ হিসেবে দেখতে পারেন। সে এমন একজন খেলোয়াড় যে মূল একাদশের সবাইকে নিজেদের জায়গা নিয়ে ভয় ঢুকিয়ে দিতে পারে।”

তিনি আরও যোগ করেন, “এটাই আমাদের দলের গভীরতা বলতে পারেন। সে হয়তো খেলবে না, তবু কী দুর্দান্ত তার পারফরম্যান্স। সে না খেললেও আমাদের দল কিন্তু দারুণ। কারণ অন্যান্য খেলোয়াড়রাও অসাধারণ খেলছে। এ জিনিসটাই আমাদের আত্মবিশ্বাস জোগায়, যা আমাদের বড় ম্যাচে ভালো খেলতে সহায়তা করে।”

মন্তব্য: