ঘরোয়া ক্রিকেটে তিন মাসের বিরতিতে ইংল্যান্ডে ক্রিকেট নিয়ে ব্যস্ত ছিলেন মোহাম্মদ আশরাফুল। কেন্ট প্রিমিয়ার লিগে ব্ল্যাকহিথ ক্রিকেট ক্লাবের হয়ে দারুণ এক মৌসুম কাটিয়ে দেশে ফিরেছেন তিনি।

কেন্ট লিগে ব্যাট আর বল হাতে সমতালে দারুন পারফর্ম করেছেন আশরাফুল। ১৫ টি ওয়ানডে ম্যাচের ১১ ইনিংসে ব্যাট হাতে ৪৫০ রানের পাশাপাশি বল হাতেও নিয়েছেন ২০ উইকেট।

নিজের পারফরমেন্স নিয়ে আশরাফুল বলেন, ‘তিন মাসেরও বেশি সময় দেশের বাইরে ছিলাম। পুরো সিজনই খেললাম। শুরুতে তিনটা ম্যাচ খেলতে পারিনি, পরে ১৫টা ম্যাচের জন্য ছিলাম। যেহেতু আমাদের মৌসুম বন্ধ ছিল, বন্ধের সময়টা সেখানে কাটানো। বিশ্বকাপের ম্যাচও দেখলাম। পরিবার নিয়ে গিয়েছিলাম, ভালো সময় কেটেছে।’

বিশ্বকাপ চলাকালীন সময়ে পরিবার নিয়ে ইংল্যান্ডে ছিলেন আশরাফুল। এবার ফিরেছেন নিজ ডেরায়, ফিরেছেন বাংলাদেশে। উদ্দেশ্য জাতীয় লীগ। আগামী ৫ অক্টোবর থেকে শুরু হচ্ছে জাতীয় ক্রিকেট লিগ। লঙ্গার ভার্সনের এই ফরম্যাটে পারফর্ম করতে মরিয়া আশরাফুল। সেই লক্ষ্যে বৃহস্পতিবার বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের (বিসিবি) একাডেমি মাঠে অনুশীলনে ঘাম ঝরিয়েছেন তিনি।

সবাই যখন বিপ টেস্ট নিয়ে চিন্তিত তখন আশরাফুল খানিকটা নির্ভারই বটে। জাতীয় লিগে রান পাওয়া নিয়ে বেশ আশাবাদী। তিনি বলেন, ‘আমি আশা করি এবার জাতীয় লিগে একটু সুবিধা হবেই। আমাদের বেশিরভাগ ক্রিকেটারই বসে ছিলো। খেলার সুযোগ হয়নি। অন্যদিকে আমি খেলার ভিতরই ছিলাম। তাছাড়া ইংল্যান্ডে অনুশীলনও হয়েছে বেশ, সেখানকার প্রায় সব টুর্নামেন্টেই খেলা হয় ডিউক বলে। কেন্ট লিগেও ডিউক বলে খেলেছি। বলের কারণেই সেখানে প্রথম থেকে শেষ ওভার পর্যন্ত সুইং পান পেসাররা। বাংলাদেশে খেলা হয় কোকাবুরা বল দিয়ে। এই বলে পেসারয়া খুব বেশি সুইং পান না। ইংল্যান্ডের পেসারদের সুইং সামলে ব্যাটিং করে আসাতে আসন্ন জাতীয় ক্রিকেট লিগে পারফর্ম করতে সুবিধা হবে বলেই আমার বিশ্বাস।’

মন্তব্য: