ভারতীয় বোলারদের তোপে তাদের দেয়া মাঝারি লক্ষ্যও পাহাড় সমান চাপ হয়ে দেখা দেয় ক্যারিবিয়ানদের জন্য। উইন্ডিজের কোন ব্যাটসম্যানই দায়িত্ব নিতে না পারায় তাসের ঘরের মতো ভেঙে পড়ে ক্যারিবিয়ানদের ব্যাটিং লাইনআপ। আর তাইতো দুইবারের বিশ্বচ্যাম্পিয়ন উইন্ডিজের সেমির স্বপ্ন ধূলিস্যাৎ হলো নিজেদের সপ্তম ম্যাচে ভারতের কাছে ১২৫ রানের বিশাল ব্যবধানে হেরে।

আফগানিস্তান, দক্ষিণ আফ্রিকার পরে তৃতীয় দল হিসেবে ইংল্যান্ড বিশ্বকাপের গ্রুপ পর্ব থেকে বাদ পড়লো ওয়েস্ট ইন্ডিজ। ২৬৯ রানের লক্ষ্যে ব্যাট করতে নেমে উইন্ডিজ শুরুতেই ওপেনার ক্রিস গেইল (৫) ও ওয়ান ডাউনে নামা শাই হোপকে (৬) হারায়। দুই গুরুত্বপূর্ণ ব্যাটসম্যানকে হারানোর পর সুনীল আমব্রিস ও নিকোলাস পুরান প্রতিরোধ গড়ার চেষ্টা করে করেন। তবে উইকেটে সেট হওয়ার পরও দুজনের কেউই টিকে থাকতে পারেননি।

পুরান ২৭ ও আমব্রিস ৩১ রান করে বিদায় নিলে উইন্ডিজের ব্যাটিং লাইনআপ যেন খেই হারিয়ে ফেলে। ক্যারিবিয়ানদের অধিনায়ক অধিনায়ক জেসন হোল্ডারও দলীয় ১০০ রানের মধ্যেই আউট হন। কার্লোস ব্র্যাথওয়েট ও ফাবিয়ান অ্যালেনকেও ২৭ টম ওভারে পর পর দুই বলে আউট করেন জাসপ্রিত বুমরা। শেষ দিকে এসে কেমার রোচের অপরাজিত ১৪ ও শেল্ডন কটরেলের ১০ রানের ইনিংস পরাজিয়ের ব্যবধান কমিয়েছে ক্যারিবিয়ানদের।

৩৪.২ ওভারে ১৪৩ রানে সবকটি উইকেট হারিয়ে শেষ হয় উইন্ডিজের ইনিংস। ভারতের হয়ে মোহাম্মদ শামি চারটি উইকেট শিকার করেন। এছাড়া জাসপ্রিত বুমরাহ ও যুযবেন্দ্র চাহাল দুটি করে এবং হার্দিক পান্ডিয়া ও কূলদ্বীপ যাদব একটি করে উইকেট পান।

এর আগে টসে জিতে ব্যাট করতে নেমে ২৬৮ রানের চ্যালেঞ্জিং স্কোর গড়ে ভারত। ভারতের হয়ে সর্বোচ্চ ৭২ রানের ইনিংসটি আসে অধিনায়ক বিরাট কোহলির ব্যাট থেকে। এছাড়া ভারতের হয়ে ধোনি ৫৬ ও পান্ডে ৪৬ রান করে।

ক্যারিবিয়ানদের বিপক্ষে ভারতের হয়ে উদ্ধোধনী জুটিতে ২৯ রানের বেশি তুলতে দেননি রোচ। এরপরই ১৮ রান করা রোহিত শর্মাকে রিভিউ নিয়ে প্যাভিলনে ফেরত পাঠান। অন্য ওপেনার লোকেশ রাহুলকে নিয়ে শুরুর ধাক্কা কাটিয়ে ওঠেন কোহলি। দলীয় ৯৮ রানে রাহুলকে ৪৮ রানে বোল্ড আউট করে উইন্ডিজ অধিনায়ক হোল্ডার।

মূলত রাহুলের বিদায়ের পর বিজয় শঙ্কর ১৪ ও কেদার যাদব মাত্র ৭ রানে প্যাভিলনে ফেরত যান। তবে ভারতের এক প্রান্ত আগলে রেখে ক্রিজে হাফসেঞ্চুরি তুলে নেন অধিনায়ক বিরাট কোহলি। পঞ্চম উইকেটে তাকে সঙ্গ দেন ধোনি। এই জুটিতে ৩০ রান তোলার পর কোহলির উইকেটটি তুলে নেন হোল্ডার। ৮২ বল থেকে ৮টি বাউন্ডারিতে ৭২ রান করেন কোহলি।

ষষ্ঠ উইকেটে ভারত লড়াই করার শক্তি পায় ধোনি ও পান্ডের ৭০ রানের জুটিতে। দলীয় ২৫০ রানের সময় এই জুটির পান্ডেকে বিদায়ী স্যালুট করেন কটরেল। পান্ডে ৩৮ বল থেকে ৪৬ রান করেন।

পান্ডে ফিরলেও ম্যাচ শেষ করে আসেন ধোনি। তিনি ৬১ বল থেকে ৫৬ রানে অপরাজিত থাকেন। যার সুবাদে নির্ধারিত ৫০ ওভার শেষে ৭ উইকেটে ২৬৮ রানের স্কোর গড়লো ভারত।

ক্যারিবিয়ানদের হয়ে রোচ ৩৬ রানে নেন ৩টি উইকেট। এছাড়া হোল্ডার ও কটরেল নেন ২টি করে উইকেট।

সংক্ষিপ্ত স্কোর:

ভারত: ৫০ ওভারে ২৬৮/৭ (রাহুল ৪৮, রোহিত ১৮, কোহলি ৭২, শঙ্কর ১৪, কেদার ৭, ধোনি ৫৬, পান্ডিয়া ৪৬, শামি ০, কুলদিপ ০; কটরেল ২/৫০, রোচ ৩/৩৬, থমাস ০/৬৩, অ্যালেন ০/৫২, হোল্ডার ২/৩৩, ব্র্যাথওয়েট ০/৩৩)।

উইন্ডিজ: ৩৪.২ ওভারে ১৪৩ (গেইল ৬, আমব্রিস ৩১, হোপ ৫, পুরান ২৮, হেটমায়ের ১৮, হোল্ডার ৬, ব্র্যাথওয়েট ১, অ্যালেন ০, রোচ ১৪*, কটরেল ১০, থমাস ৬; শামি ৪/১৬, বুমরাহ ২/৯, পান্ডিয়া ১/২৮, কুলদিপ ১/২৩৫, কেদার ০/৪, চাহাল ২/৩৯)।

ফলাফল: ভারত ১২৫ রানে জয়ী।

ম্যান অব দ্য ম্যাচ: বিরাট কোহলি।

মন্তব্য: