2.1 C
New York
Friday, December 9, 2022

Buy now

উদ্ধার হওয়া সালার বিমানে রয়েছে একটি লাশ

প্রায় ১৩ দিন পর সোমবার ২৮ বছর বয়সী নিখোঁজ আর্জেন্টাইন ফরোয়ার্ড এমিলিয়ানো সালাকে বহনকারী বিমানের ধ্বংসাবশেষ এর খোঁজ পেয়েছিল উদ্ধারকোরী সংস্থা ব্রিটিশ এয়ার অ্যাক্সিডেন্ট ইনভেস্টিগেশন ব্রাঞ্চ (এএআইবি)। সোমবার উদ্ধারকারী দল ইংলিশ চ্যানেলের ২২০ ফিট নীচে খুঁজে পেয়েছে কার্ডিফ সিটিতে যোগ দিতে যাওয়া ফুটবলারের বিমানের অংশ। তাদের ক্যামেরায় ধরা পড়েছে ভেঙে পড়া বিমানের ছবি। এবং আরও দেখা গিয়েছে একটি দেহের ছবি। সেটি এমিলিয়ানো সালা না কি বিমান চালক ডেভিড ইবোস্টনের, তা এখনও চিহ্নিত করা যায়নি।

গতকাল ৩ জানুয়ারি স্থানীয় সময় বিকেল ৪টা ১৮ মিনিটে অনুসন্ধানকারী দল ইংলিশ চ্যানেলের দ্বীপ গুইয়ার্ন্সির ২৪ নটিক্যাল মাইল দূরে সমুদ্রের তলদেশে সালাকে বহনকারী বিমানের ধ্বংসাবশেষ খুঁজে পায়। বিমান দুর্ঘটনা সংক্রান্ত তদন্তকারী সংস্থা (এএআইবি) সালার পরিবারকে সেই উদ্ধারের খবর জানিয়েছে। কিন্তু ইংলিশ চ্যানেলে প্রবল ঢেউ এবং খারাপ আবহাওয়ার কারণে উদ্ধারকারী দলের সদস্যরা জলের নীচে যেতে পারেননি। আবহাওয়া স্বাভাবিক হলে বিমানের ভিতরে ঢোকার চেষ্টা করা হবে বলে জানানো হয়েছে।

গত ২১ জানুয়ারি ফ্রান্স থেকে কার্ডিফ সিটিগামী বিমানে উঠেছিলেন সালা। কিন্তু ইংলিশ চ্যানেলের উপরে তাঁর বিমান নিখোঁজ হয়ে গিয়েছিল। অনুমান করা হয়েছিল, হয়তো বা সেই বিমান ভেঙে পড়েছে। ২৪ জানুয়ারি উদ্ধারের কাজ সরকারি ভাবে স্থগিত হয়ে গেলেও সালাকে খোঁজার জন্য বিশেষ তহবিল তৈরি হয়েছিল। যে তহবিলে অনুদান দিয়েছিলেন কিলিয়ান এমবাপে-সহ বিশ্বের বিভিন্ন তারকা ফুটবলাররাও। তখন ফের উদ্ধারের কাজ শুরু হয়।

সোমবার সমুদ্রবিজ্ঞানী ডেভিড মিয়ার্নস বলেছেন, ‘‘বিমান কোথায় ভেঙে পড়েছিল সেই জায়গা চিহ্নিত করে নতুন ভাবে খোঁজ করা শুরু হয়েছিল। সাবমেরিনের ক্যামেরায় প্রথম ধরা পড়ে ভেঙে পড়া বিমানের অংশ। মিয়ার্নস আরো বলেছেন, ‘‘বিমানের গায়ে লেখা রেজিস্ট্রেশন নম্বর মিলিয়ে দেখার পরেই আমরা নিশ্চিত হই। অদ্ভুত ভাবে বিমানের বড় অংশই জলের নীচে অক্ষত রয়েছে।’’

তবে বিমানের ভিতরে এখনও ঢোকা যায়নি। পরিস্থিতি একটু স্বাভাবিক হলে সেই চেষ্টা করা হবে। ক্যামেরায় যে দেহের ছবি ধরা পড়েছে, তা কি সালার? সে সম্পর্কে এখনও নিশ্চিত করে কিছু বলতে পারেননি মিয়ার্স। তাঁর মন্তব্য, ‘‘হতেও পারে। যতক্ষণ না বিমানের ভিতরে যাওয়া যাবে, তার আগে কিছুই স্পষ্ট নয়। সবে তল্লাশির একটা ধাপ শেষ হয়েছে। এখনও অনেক কাজ বাকি।’’

এ দিকে, আর্জেন্টিনায় সালার বাবা হোরাসিয়ো যে কোনও মূল্যে সেই বিমানকে উপরে তোলার জন্য অনুরোধ করেছেন উদ্ধারকারী দলকে। তিনি বলেছেন, ‘‘এমনই এক মর্মান্তিক খবর যে শুনতে হবে, তার জন্য তৈরি ছিলাম না। আমার কাছে এখনও বিমান ভেঙে পড়ার ঘটনা দুঃস্বপ্ন বলে মনে হচ্ছে।’’

Related Articles

Leave a reply

Please enter your comment!
Please enter your name here

Stay Connected

0FansLike
3,598FollowersFollow
0SubscribersSubscribe
- Advertisement -spot_img

Latest Articles