বাংলাদেশ দল দেশে ফিরলেও দলের সঙ্গে আসেননি তাদের পেস বোলিং কোচ কোর্টনি ওয়ালশ। বিসিবির সাথে চুক্তির মেয়াধ শেষ হওয়া এবং নতুন চুক্তিতে বিসিবি আগ্রহী না হওয়ায় বিদায় নিতে হচ্ছে ক্যারিবিয়ান কিংবদন্তিকে। যদিও বিসিবি থেকে এখনো ঘোষণা দেওয়া হয়নি।

ওয়ালশের কোচ থাকা সময়ে তেমন কোনো সাফল্য দেখাতে পারেননি তিনি। তবে বিশ্বকাপ তার জন্য শেষ সুযোগ ছিল। কিন্তু সেখানেও বোলারদের বাজে পারফরম্যান্সে সবকিছু মিলিয়ে তার বিদায়টা নিশ্চিতই বলা চলে। যদিও চুক্তি শেষ হয়ে যাওয়ায় ঘোষণার প্রয়োজনও পড়ছে না।

ক্রিকেটারদের সবাই হোটেল ছাড়ার সময় ওয়ালসকে দেখা যায় আলাদা ভাবে টেক্সি নিয়ে চলে যেতে। মূলত এইটাই ছিল তার শেষ বিদায়। লন্ডনে থেকে নতুন চাকরির সন্ধান করবেন তিনি।

২০১৬ সালে বাংলাদেশের বোলিং কোচ হিসাবে যোগ দেন ওয়ালস। ২০১৯ সালের বিশ্বকাপ পর্যন্ত মেয়াদ ছিল তার। ওয়ালশ না থাকলে আসন্ন শ্রীলঙ্কা সফরে হাই পারফরম্যান্স ইউনিটের কোচ চম্পাকা রামানায়েকে পেতে পারেন পেস বোলিং কোচের দায়িত্ব।

এদিকে শুধু টাইগার বোলিং কোচ ওয়ালশ নয়, শোনা যাচ্ছে ফিজিও থিহান চন্দ্রমোহনের চুক্তিও নবায়ন না করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে বিসিবি। তার দক্ষতা নিয়েও বেশ কিছুদিন ধরেই প্রশ্ন উঠছিল। পুরো বিশ্বকাপ আসরেই ক্রিকেটাররা ছোটো খাটো ইনজুরি সমস্যায় ভুগছে। তার জায়গায় সাবেক ফিজিও দক্ষিণ আফ্রিকার বিভব সিংকে আবার আনার চেষ্টা চলছে।

মন্তব্য: