বৃহস্পতিবার আইপিএলে ছক্কা হাঁকিয়ে রাজস্থানকে ৪ বল বাকী থাকতে জয় এনে দিলেন জোফ্রা আর্চার। ৩ উইকেটে জয় পেল স্টিভ স্মিথের দল। ফলে ১২ ম্যাচ শেষে চার জয় নিয়ে টেবিলের সপ্তম স্থানে উঠে আসল তারা। অন্যদিকে সমান ম্যাচে সমান জয় পেয়েছে কলকাতা। টানা ছয় ম্যাচ হেরে প্লে অফ খেলার সমীকরণ অনেক যদি কিন্তুর উপর চলে গেল কলকাতা নাইট রাইডার্সের।

এদিন প্রথমে ব্যাট করতে নামে কলকাতার দুই ওপেনার ক্রিস লিন এবং শুভমন গিল। শূন্য রানে প্যাভিলিয়নে ফিরে যান লিন। গিল করেন ১৪ রান। ২৬ বলে ২১ রান করে আউট হয়ে যান নীতীশ রানা। কলকাতাকে লড়াই করার মতো পুঁজি এনে দেন অধিনায়ক দীনেশ কার্তিক। খেলেন অপরাজিত ৯৭ রানের ইনিংস। তাঁর এই দুরন্ত ইনিংস সাজানো ৭টি চার এবং ৯টি ছক্কা দিয়ে। তার ইনিংসের উপর ভর করেই ৬ উইকেট হারিয়ে শেষ পর্যন্ত ১৭৫ রান করে কলকাতা।

আন্দ্রে রাসেলও সেরকম কিছুই চমৎকার করতে পারেননি। ১৪ বল খেলে মাত্র ১৪ রান করে আউট হয়ে যান তিনি। রাজস্থানের হয়ে সর্বাধিক উইকেট নেন বরুণ অ্যারন। চার ওভার বল করে ২০ রান দিয়ে ২ উইকেট তুলে নেন তিনি।

শুরুটা ভালই করেছিলেন রাজস্থানের দুই ওপেনার। ২১ বলে ৩৪ রান করে আউট হয়ে যান অজিঙ্কা রাহানে। সাঞ্জু স্যামসন ১৫ বলে ২২ রান করে প্যাভিলিয়নে ফিরে যান। তবে রাজস্থান অধিনায়ক স্টিভ স্মিথ মাত্র ২ রান করে আউট হয়ে যান। বেন স্টোকসও ১০ বলে ১১ রান করে চাওলার বলে রাসেলের হাতে ক্যাচ তুলে দেন। মাত্র ১১ রান করে আউট হয়ে যান বেন স্টোকস। স্টুয়ার্ট বিনিও সেই ১১ রানেই ফিরে যান। শ্রেয়াস গোপাল করেন ১৮ রান।

তবে রাজস্থানের হয়ে বড় রানের ইনিংস খেলেন রিয়ান পরাগ। ৩১ বলে ৪৭ রান করেন তিনি। চার মারেন ৫টি এবং ছক্কা হাঁকান ২টি। শেষ পর্যন্ত রাজস্থানের জোফরা আর্চার এবং জয়দেব উনাদকাট ম্যাচ জিতিয়ে দেন। ১২ বলে ২৭ রান করে অপরাজিত থেকে যান আর্চার।

কলকাতার হয়ে এ দিন দুর্দান্ত বোলিং করেন পীযূষ চাওলা। ২০ রান দিয়ে ৩ উইকেট নেন পীযূষ। এ ছাড়াও সুনীল নারিন ২ উইকেট নেন। তবে অন্যরা সকলেই ছিলেন খরুচে তাই কলকাতাকে আবারো হারের মুখ দেখতে হলো।

মন্তব্য: