বুধবার ক্রিকেটারদের নিয়ে বৈঠকে বসেছিল বিসিবি কর্মকর্তরা। সেই সভায় ছিলেন জাতীয় দলের ম্যানেজার খালেদ মাহমুদ সুজন। বৈঠকে ঘরোয়া ক্রিকেটে ম্যাচ পাতানোসহ পক্ষপাতমূলক আম্পায়ারিং কথা তোলেন ক্রিকেটাররা। তবে এই বিষয় গুলো নাকি ক্রিকেটারদেরই সাজানো নাটক দাবি করেন সুজন। সুজনের এমন মন্তব্যের কারণে বিসিবি সভাপতি নাজমুল হাসানের তোপের মুখে পড়তে হয়েছে তাকে।

২২ অক্টোবর ক্রিকেটারদের আন্দোলনের দ্বিতীয় দিন বিসিবির সংবাদ সম্মেলনে ক্রিকেটারদের আন্দোলনের বিপক্ষে অবস্থান নিয়েছিলেন সুজন। পরশু রাতেও এই বোর্ড পরিচালক ধরে রাখেন সেই ধারাবাহিকতা। সভার একাধিক সূত্র জানিয়েছে, তিনি নাকি ঢাকার ক্রিকেটে কোনো পাতানো ম্যাচ হয় না বলে দাবি করেছেন সভায়। আম্পায়ারদের দু-একটি ভুল ছাড়া বাকি সবই নাকি কোচ, খেলোয়াড় ও কর্মকর্তাদের সাজানো নাটক।

মাহমুদ বারবার খেলোয়াড়দেরই অভিযোগের কাঠগড়ায় দাঁড় করানোর একপর্যায়ে তাঁর ওপর খেপে যান বোর্ড সভাপতি নাজমুল হাসান। উচ্চ স্বরে তিনি বলে ওঠেন, ‘চুপ করো। তুমি (খালেদ মাহমুদ) আর কথা বলবা না। একটা কথাও না। তোমার লজ্জা লাগে না! টাকা নাও আবার কথা বলো! আমাকে অনেক ভুল বুঝাইছ এত দিন।’

এর আগে ২২ অক্টোবর সংবাদ সম্মেলনে নাজমুল হাসান একপর্যায়ে স্বীকার করেন, বিসিবির পরিচালক হয়েও জাতীয় দলের ম্যানেজার হিসেবে খালেদ মাহমুদের বেতন নেওয়া, ঘরোয়া ক্রিকেটে বিভিন্ন দলের কোচিং করানো স্বার্থের সংঘাত সৃষ্টি করছে।

মন্তব্য: