খেলোয়াড়কে লাথি মেরে ৬ মাসের নিষেধাজ্ঞার কবলে রেফারি!

Tony Chapron,psg
ফুটবল বিশ্বে কত রকম ঘটনাই তো ঘটে। নিত্য নতুন ঘটনা, কত ঘটনার সাথে সাথে মারামারি, ভালোবাসা আর লাল হলুদ কার্ডের ছড়াছড়ি এই জাদুর জগতে অতি সাধারণ ঘটনা। অতি নিকটবর্তী একটি ঘটনা ফুটবল বিশ্বের ভীত অনেকটাই নাড়িয়ে দিয়েছে। আমরা আগেও দেখেছি ফুটবলার ফুটবলার একে অন্যকে আঘাত পাল্টা আঘাত করছে এবং তার শাস্তি স্বরূপ রেফারির তরফ থেকে তাদের প্রতি হলুদ কার্ড, লাল কার্ড অথবা নিষেধাজ্ঞার খড়গ নেমে আসে। কিন্তু এবার আমরা দেখলাম অন্যরকম এক ঘটনা, আর যেখানে অপরাধী স্বয়ং রেফারি। এবং, তার অপরাধ স্বরূপ স্বস্তিও পেয়েছেন তিনি।

সম্প্রতি ঘটনাটি ঘটেছে লিগ ওয়ানের পিএসজির বনাম নতেঁর ম্যাচে। আর ঘটিয়েছেন ফরাসি রেফারি তনি শাপরোন। ছয় মাসের নিষেধাজ্ঞা পাওয়া তনি শাপরোনকে ম্যাচের এক পর্যায়ে অসাবধানতাবশত কার্লোসের পায়ে লেগে পড়ে যাওয়ার পর এই সেন্টার ব্যাককে লাথি মারতে দেখা যায়। একজন ফুটবলারকে অহেতুক শুধু লাথি মারেননি তিনি বরং তাকে দ্বিতীয় হলুদ কার্ড দেখিয়ে মাঠ ছাড়া করেন। তার এমন হিংস্র আচরণে চমকে যায় শান্তিপূর্ণ ফুটবল বিশ্ব। ফুটবল ফেডারেশনের কাছে তাকে নিষিদ্ধের দাবি জানায় নতেঁর কর্মকর্তারা।

নতেঁর ব্রাজিলিয়ান রক্ষণভাগের খেলোয়াড় কার্লোসের নিষেধাজ্ঞা তুলে নেয়া হলেও ছয় মাসের নিষেধাজ্ঞা পেয়েছেন ফরাসি রেফারি তনি শাপরোন।

অবশ্য, এক বিবৃতিতে ফ্রান্সের রেফারিং কর্তৃপক্ষের টেকনিক্যাল ডিরেক্টর জানান নিষেধাজ্ঞা শেষে শাপরোন লিগ ওয়ান ও লিগ টু এর ম্যাচে রেফারির দায়িত্ব পালন করতে পারবেন। শাপরোনর ছয় মাসের নিষেধাজ্ঞার মধ্যে তিন মাসের শাস্তি কার্যকর স্থগিত করা হয়েছে বলে জানিয়েছে ফরাসি ফুটবল ফেডারেশন (এফএফএফ)।

আরও পড়ুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *