চলতি বিশ্বকাপে পাঁচটি ম্যাচে অংশ নিয়েছে সরফরাজ আহম্মেদের দল পাকিস্তান। ম্যাচ গুলোর মধ্যে ইংল্যান্ড ম্যাচ ছাড়া সবকটিতেই হেরেছে তারা। এমন অবস্থায় পাকিস্তান দলের ভেতরে দলাদলির মতো চাঞ্চল্যকর তথ্য বেরিয়ে আসলো। পাকিস্তানের কয়েকটি সংবাদ মাধ্যমের প্রকাশিত প্রতিবেদনে জানা গেছে পুরো দল এখন দুই দলে বিভক্ত হয়ে আছে।

পাকিস্তানের টেলিভিশন চ্যানেল ‘সামা টিভি’ তাদের এক প্রতিবেদনে জানায়, ভারতের বিপক্ষে মাত্র ১২ রানে আউট হয়ে ড্রেসিংরুমে ফিরে কয়েকজন সতীর্থের ওপর ক্ষোভ ঝারেন অধিনায়ক সরফরাজ। অধিনায়কের এমন ক্ষোভের শিকার হওয়াদের মধ্যে ছিলান শোয়েব মালিক ও বাবর আজমের মতো তারকা ক্রিকেটাররাও। রাগ ঝারার এক পর্যায়ে ইমাম উল হক ও ইমাদ ওয়াসিমের বিরুদ্ধে দলাদলি, অসহযোগিতা ও তার বিরদ্ধে ষড়যন্ত্র করার অভিযোগও আনেন অধিনায়ক।

আরেক টেলিভিশন চ্যানেল ‘দুনিয়া নিউজ’ও প্রায় একই ধরনের তথ্য দিয়েছে। তাদের প্রতিবেদনে বলা হয়, পাকিস্তানের ড্রেসিংরুমে এই মুহূর্তে দুটি গ্রুপ রয়েছে। একটি গ্রুপকে নেতৃত্ব দিচ্ছেন মোহাম্মদ আমির। বাকি গ্রুপের নেতৃত্বে রয়েছেন ইমাদ ওয়াসিম। অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে হারের পর সরফরাজের ওপর ক্ষুব্ধ হন শোয়েব মালিক, ইমাদ ওয়াসিম, ইমাম উল হক ও বাবর আজমসহ বেশ কয়েকজন ক্রিকেটার। কেবল তাই নয়, ভারতের বিপক্ষে ম্যাচ শেষে মাঠেই ক্ষুব্ধ আচরণ করতে দেখা যায় মোহাম্মদ আমিরকে।

এদিকে এমন পরিস্থিতে পাকিস্তান অধিনায়কে সরফরাজ আহমেদকে ডেকে পাঠিয়েছেন পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ড (পিসিবি) সভাপতি এহসান মানি। তবে তা শুধুই উৎসাহমূলক কথা বলার জন্য। দলের সবার প্রতি শান্ত থাকারও পরামর্শ দেন পিসিবি সভাপতি। এমনটাই জানাচ্ছে পাকিস্তানের সংবাদমাধ্যম দ্যনিউজ.কম.পাক।

মন্তব্য: