শুক্রবার রাতে আন্তসংসদীয় ক্রিকেট বিশ্বকাপের ফাইনাল অনুষ্ঠিত হয়েছে। চার দিনব্যাপী আট দলের লড়াইয়ে শেষমেশ বাংলাদেশকে হারিয়ে শিরোপা জিতে নিয়েছে পাকিস্তান দল। ৯ উইকেটের বড় ব্যবধানে হেরে রানার্সআপ হয়েছে বাংলাদেশ।

তবে এই টুর্নামেন্টে পাকিস্তানের বিপক্ষে প্রতারণার অভিযোগ উঠেছে। নিয়ম অনুসারে শুধুমাত্র সংসদ সদস্যরা এই টুর্নামেন্ট খেলার কথা থাকলেও পাকিস্তান খেলিয়েছে পেশাদার ক্রিকেটার। তবে এই তালিকায় পাকিস্তানের সঙ্গে আছে আফগানিস্তান ও স্বাগতিক ইংল্যান্ড।

শুক্রবার প্রথম সেমিফাইনালে পাকিস্তান ও আফগানিস্তান মাঠে নামে। এই সময় দুই দলের ছিল পেশাদার ক্রিকেটার। বলতে গেলে দুই দলই ছিল প্রায় এমপি শূন্য।

এই ম্যাচে পাকিস্তান জিতে ফাইনাল নিশ্চিত করে। ফাইনালে যখন তারা বাংলাদেশের বিপক্ষে পেশাদার ক্রিকেটারদের নিয়ে একাদশ সাজায়। যা নিয়ে বাংলাদেশ আপত্তি জানালে পাকিস্তানের সঙ্গে বাংলাদেশের নাইমুর রহমান দূর্জয়, জুনাইদ আহম্মেদ পলক, মোহাম্মদ জাহিদ আহমেদ রাসেলের বাকবিতন্ডা বাঁধে।

পাকিস্তানের সংসদরা তর্ক জুড়ে দেয় আফগিানিস্তান যখন আপত্তি করেনি তাহলে তোমরা কেন তর্ক করছো। সে সময় বাংলাদেশের তরফ থেকে জানানো হয় এটা তো নিয়মের বাইরে। চার দিনের এই আসরে প্রতিটি দলে খেলানো সংসদদের যাচাই বাছাই করেনি আয়োজকরা। তাই যে যার মতো করে নামে খেলিয়েছে।

ম্যাচ শেষে অবশ্য হতাশা গোপন করে রাখতে পারেননি পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী মোহাম্মদ শাহরিয়ার আলম এমপি। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে একটি পোস্টে তিনি বলেন, কাউন্টি ক্রিকেট খেলে এইরকম ছয় জয়নকে খেলিয়েছে। আমরা কি আর তাদের সাথে পারি! রানার্সআপই সই। আপনাদের শুভকামনার জন্য অনেক ধণ্যবাদ।

উল্লেখ্য, পাকিস্তানের বিপক্ষে প্রথমে ব্যাট করতে নেমে ২০ ওভারে ৮ উইকেট হারিয়ে ১০৪ রান করে বাংলাদেশ। ব্যাটিং ব্যর্থতার দিনে বোলাররাও জ্বলে উঠতে পারেননি। ফলে, ১ উইকেট হারিয়ে ১২ ওভারেই জয় নিশ্চিত করে পাকিস্তান।

মন্তব্য: