তুলনায় বাংলাদেশের চেয়ে এগিয়ে থাকবে দক্ষিণ আফ্রিকা। তবে মাশরাফি বাহিনীও ছেড়ে কথা বলবে না। দলের অভিজ্ঞ ক্রিকেটাররা তো আছেনই এখন তরুণরাও জ্বলে উঠছেন। সৌম্য-সাইফুদ্দিনের মতো তরুণরাও সম্প্রতি বাংলাদেশ দলের জন্য আশা জাগানিয়া পারফর্মেন্স করছেন।

আর সবদিক বিবেচনায় নিজেদের সামর্থ্যে বিশ্বাস রাখছেন বাংলাদেশ অধিনায়ক মাশরাফি বিন মর্তুজা। মাশরাফি জানান, ‘আমরা কোন দিক থেকেই বিশ্বকাপের ফেভারিট না। উইকেট বলেন, যাই বলেন, এমনকি কালকের ম্যাচের কথাও যদি বলে তাহলে দক্ষিণ আফ্রিকা অবশ্যই ফেভারিট হিসেবেই খেলবে। তবে এটাও সত্যি কথা আমরাও এখানে আমাদের সেরাটা খেলব।

‘আমরা প্রস্তুতি নিয়েছি আমরা অবশ্যই চাইব জিততে। চাইব যেন কাল আমরা ভালো করি। আমরা কোন জায়গা থেকেই ভাবছি না আমরা ম্যাচটা হেরে যাব।’

ক্রিকেটপ্রিয় বাংলাদেশিদের প্রতি মাশরাফির প্রার্থনা; তাদের মাত্রাতিরিক্ত প্রত্যাশা যেন ক্রিকেটারদের ওপরে চাপ সৃষ্টি না করে এদিকেও সমর্থকদের খেয়াল রাখতে বললেন মাশরাফি।

‘আমাদের অনেক খেলোয়াড়রাও মনে করছেন আমরা ভালো করব। এটা ভালো, আমি বলছি না যে প্রত্যাশা করা খারাপ। অনেক সময় এটা সেরাটা বের করে আনে। আমার কথা হচ্ছে প্রত্যাশা যেন চাপ সৃষ্টি না করে।’

মন্তব্য: