বিশ্বকাপের ইতিহাসে এটাই ছিল প্রথম। প্রোটিয়া কাপ্তান ফাফ ডু প্লেসিসের এমন সিদ্ধান্তে হতবাক হয়েছিল পুরো ক্রিকেট বিশ্ব। কিন্তু ম্যাচ শেষ দলপতি ফাফ সবাইকে আরও একবার হতবাক করে জানিয়েছেন, এক বছর আগেই এমন পরিকল্পনা করে রেখেছিলেন তিনি। ইংল্যান্ডের বিপক্ষে বিশ্বকাপের উদ্বোধনী ম্যাচে প্রথম ওভারই লেগ স্পিনার ইমরান তাহিরকে দিয়ে শুরু করেছিল দক্ষিণ আফ্রিকা।

টসে জিতে ফিল্ডিংয়ের সিদ্ধান্ত নিয়ে প্রথম ওভারে বল করতে এসে অধিনায়ককে হতাশ করেননি তাহির। ওভারের দ্বিতীয় বলেই ইংলিশ ওপেনার জনি বেয়ারস্টোর উইকেট তুলে নিয়েছেন এই লেগ স্পিনার। শুন্য রানে সাজঘরে পাঠিয়েছেন ব্যাট হাতে দুর্দান্ত ফর্মে থাকা বেয়ারস্টোকে। প্রথম ওভার শেষ করেছিলেন ১ রানের বিনিময়ে ১ উইকেট নিয়ে।

এমন দায়িত্ব কাঁধে বর্তাবে তাঁর আগে থেকেই জানতেন তাহির। তাই নেট সেশনে গত বেশ কয়েকদিন ধরে নতুন বলে অনুশীলন করেছিলেন তিনি।

প্রথমেই দলকে উইকেট এনে দিবে ইমরান আমার বিশ্বাস ছিল তাঁর উপর।’বিস্ময়ের কিছু ছিল না। আমাদের পরিকল্পনাই এমন ছিল। এক বছর আগেই পরিকল্পনা করে রেখেছিলাম ইংল্যান্ডের বিপক্ষে ম্যাচে আমি তাহিরকে দিয়েই শুরু করব।

কিন্তু সে জানত যে আজ তাঁকে প্রথম ওভার করতে হবে,’ ম্যাচে শেষে সংবাদ সম্মেলনে বলেছেন ডু প্লেসিস।সে গত দুই সপ্তাহ ধরে নতুন বলে অনুশীলন করেছে, এটা কখনো আগে হয়নি।

দুর্দান্ত শুরুর পরও ইংল্যান্ডকে তিনশ’র নিচে আটকে রাখতে পারে নি দক্ষিণ আফ্রিকা। বেন স্টোকস, জেসন রয়, জো রুট, ইয়ন মরগানদের অর্ধশতকে ৩১১ রানের বিশাল পুঁজি দাঁড় করেছিল ইংল্যান্ড। যেখানে ১০ ওভার হাত ঘুরিয়ে ৬১ রানের বিনিময়ে ২ উইকেট নিয়েছিলেন তাহির।

২০৭ রানেই অলআউট হয়েছে দক্ষিণ আফ্রিকা। পরাজিত হয়েছে ১০৪ রানের বিশাল ব্যবধানে। কিন্তু ম্যাচটি জয় নিয়ে মাঠ ছাড়তে পারেনি প্রোটিয়া ব্যাটসম্যানরা।

মন্তব্য: