সাকিব আল হাসানের বাবা মাসরুর রেজা বলেছেন, আমার ছেলে ষড়যন্ত্রের শিকার। সে এমন কোনো অপরাধ করেনি যে তাকে নিষিদ্ধ করতে হবে। ভুল তো মানুষের হতেই পারে। সাকিব বাংলাদেশের গর্ব, তথা মাগুরার গর্ব।

বিশ্বসেরা অলরাউন্ডার সাকিব আল হাসান দুই বছরের জন্য নিষিদ্ধ হওয়ায় হৃদয় ভেঙে গেছে বাংলাদেশের ক্রিকেটপ্রেমী মানুষের। জুয়াড়ির কাছে তিনবার ফিক্সিংয়ের প্রস্তাব পেয়েছিলেন সাকিব আল হাসান। কিন্তু কোনোবারই বিষয়টি আইসিসি এবং বিসিবির অ্যান্টি করাপশন ইউনিটকে জানাননি তিনি। ফলে এই অপরাধে সাকিব আল হাসানকে শাস্তি হিসেবে দুই বছরের জন্য নিষেধাজ্ঞা দিয়েছে আইসিসি।

যদিও তিনবারের কোনোবারই ফিক্সিংয়ের প্রস্তাবে রাজি হননি সাকিব। কিন্তু আইসিসির আইন অনুযায়ী, ফিক্সিংয়ের প্রস্তাব পাওয়ার পর অথবা কোনো বিষয়ে সন্দেহ হওয়ার পরও বিষয়টা আকসুকে না জানালে শাস্তি পেতে হবে।। আর এ কারণেই শাস্তি দেয়া হয়েছে বিশ্বসেরা এই অলরাউন্ডারকে।

তবে আইসিসির তদন্তে সহযোগিতা করায় ও বিষয়টি স্বীকার করে নেয়ায় দুই বছরের মধ্যে এক বছরের নিষেধাজ্ঞা রহিত করে ক্রিকেটের এই সর্বোচ্চ নিয়ামক সংস্থা।

মন্তব্য: