পাঁচ ম্যাচ ওয়ানডে সিরিজের চতুর্থটিতে শুক্রবার পাকিস্তান প্রথমে ব্যাট করে ৩৪০ রান তুললো ৭ উইকেট হারিয়ে। জবাবে ৩ বল ও ৩ উইকেট হাতে রেখে জয় তুলে নিল ইংল্যান্ড। এমন জয়ে সিরিজও ৩-০ ব্যবধানে জিতে নিয়েছে স্বাগতিকরা।

শুক্রবার রাতে নটিংহ্যামে পাকিস্তান প্রথমে ব্যটিয়ে নেমে চতুর্থ ওভারে ধাক্কা খায় তারা। ২০ বলে ৬ করে আহত হয়ে ফিরে যান ইমামুল হক। তবে এরপর বাবর আজম আর অপর ওপেনার ফখর জামান ভালোভাবেই বিপর্যয় সামাল দেন। বিশতম ওভারে ফখর আউট হওয়ার সময় পাকিস্তানের রান ছিল ১১৬। ৫০ বল থেকে ৫৭ রান করে আউট হন ফকর।

এপরর ফিফটি করা বাবর আজমের সাথে হাফিজ ১০৪ রানের ‍জুটি গড়েন। হাফিজ ৫৯ রানে আউট হলে ক্যারয়িারের নবম সেঞ্চুরি তুলে নেন আবর আজম। ১১২ বলে ১৩ চার ও ১ ছক্কায় ১১৫ রান করেন।

শেষদিকে শোয়েব মালিকের ২৬ বলে ৪১ ও সরফরাজ আহমেদের ২১ রানের ইনিংসে দৃড়তায় পাকিস্তানের স্কোর গিয়ে দাঁড়ায় ৩৪০ রানে। ইংলিশ অলরাউন্ডার টম কারান নেন ৪ উইকেট।

বেয়ারস্টো আর মর্গ্যানকে ছাড়া ব্যাট করতে নামা ইংল্যান্ডের ভিন্স আর জেসন রয়ের ব্যাটে ৯৩ রানের ওপেনিং জুটি পায়। জ্যাসন রয় ৮৯ বলে ১১৪ রানের ইনিংস খেলে ক্যারিয়ারের অষ্টম সেঞ্চুরি তুলে নিয়ে গতিতারকা মোহাম্মদ হাসনাইনের বলে আউট হন।

মাঝখানে রুট কিছু রান করলেও বাটলার আর মঈন আলীর শূন্য রানে বিদায়ে জয়ের সোনার হরিণ ধরার স্বপ্ন দেখতে শুরু করে পাকিস্তান। কিন্তু তাদের বাড়া ভাতে ছাই ঢেলে দেন দুই অলরাউন্ডার বেন স্টোকস আর বল হাতে আগুন ঝড়ানোর পর ব্যাট হাতেও ইংল্যান্ডকে বাচান টম ক্যারান।

বেন স্টোকস ৬৪ বলে ৫ চার ও ৩ ছক্কায় করেন অপরাজিত ৭১ রান। এছাড়া বল হাতে ৩ উইকেট নিয়ে ম্যাচ সেরা হন তিনি। রোববার সিরিজের পঞ্চম ও শেষ ওয়ানডেতে মুখোমুখি হবে দল দুটি।

মন্তব্য: