রিজার্ভ ডেতে গড়াল ভারত-নিউজিল্যান্ড সেমিফাইনাল ম্যাচ। মঙ্গলবার ওল্ড ট্রাফোর্ডে টস জিতে আগে ব্যাট করতে নেমে কিউইরা ব্যাটিং শেষ করার আগেই বৃষ্টি হানা দেয়। যা পরবর্তীতে আর খেলা মাঠে গড়াতে দেয়নি।

বৃষ্টিতে খেলা থামার আগে ৪৬.১ ওভারে ৫ উইকেটে ২১১ রান করে নিউজিল্যান্ড। বুধবার ঠিক এখান থেকেই ব্যাটিং শুরু করবে নিউজিল্যান্ড। বাংলাদেশ সময় ৩টা ৩০ মিনিটে শুরু হবে খেলা।

এদিন ম্যানচেস্টারের ওল্ড ট্র্যাফোর্ডে ভারতের বিপক্ষে নিউজিল্যান্ড অধিনায়ক কেইন উইলিয়ামসন টসে জিতে প্রথমে ব্যাটিংয়ের সিদ্ধান্ত নেন। তবে নিউজিল্যান্ডের ব্যাটিংয়ের শুরুটা পরিকল্পনা মাফিক হয়নি। মাত্র ১ রানে মাথার তাদের উদ্ধোধনী জুটির ব্যটাসম্যান গাপটিলের উইকেট হারায় তারা। ইনিংসের চতুর্থ ওভারে বুমরার বলে স্লিপে ক্যাচ দেন তিনি। ১৪ বল থেকে ১ রান করেন।

দ্বিতীয় উইকেটে ইনিংস গড়ার দায়িত্বে নিকোলাস ও উইলিয়ামসনের কাঁধে বর্তায়। যা তারা ভালোই সামলাচ্ছিলেন। তবে তাদের জুটির ৬৮ রানের মাথায় নিকোলাসকে বোল্ড করে প্যাভিলিয়নে ফেরান জাদেজা। ১৯তম ওভারের দ্বিতীয় বলটিতে ৫১ বল থেকে ২৮ রান নিয়ে প্যাভিলিয়লনের পথ ধরেন নিকোলাস।

তৃতীয় উইকেটে উইলিয়ামসন ও টেইলর জুটি রানের গতি হারায়। এই জুটিতে উইলিয়ামসন এক পাশ থেকে রানের চাকা সচল রাখতে পারলেও অন্যপ্রান্তে ডট বল খেলে চাপ বাড়াচ্ছিলেন টেলর। ১০২ বল খেলে ৬৫ রানের জুটির গড়ার পর বড় শর্ট খেলতে গিয়ে চাহলের বলে ক্যাচ দিয়ে ফিরতে হলো উইলিয়ামসনকে। আউট হওয়ার আগে তিনি ৯৫ বল থেকে ৬টি বাউন্ডারিতে ৬৭ রান করেন।

উইলিয়ামসনের বিদায়ের পর ক্রিজে বেশি সময় স্থায়ী হতে পারেননি টেলর ও নিশাম জুটি। ৩৫ বল থেকে এই জুটির ২৮ রানের মাথায় আঘাত আনেন পান্ডিয়া। ১৮ বল থেকে এক বাউন্ডারিতে ১২ রান করা নিশামকে ক্যাচ আউট বানিয়ে বিদায় করেন তিনি।

পঞ্চম উইকেটে ব্যাট করতে নামা গ্রন্ডহোমকে নিয়ে ৭০ বল থেকে নিজের হাফ সেঞ্চুরি তুলে নেন টেলর। তবে এই জুটিতে ২২ বল তেকে ৩৮ রান তোলেন তারা। দলীয় ২০০ রানে গ্রান্ডহোমকে ক্যাচ আউট করেন ভুবনেশ্বর।

এরপর টেলর ও ল্যাথাম জুটিতে ৯ বল থেকে ১১ রানের জুটি গড়ার পর বৃষ্টিতে খেলা বন্ধ হয়ে যায়া। এরপর দিনের বাকিটা সময় থেমে থেমে দাপট দেখিয়েছে বৃষ্টি।

বুধবার রিজার্ভডেতে খেলার বাকি ২৩ বল ব্যাট করতে পারবে নিউজিল্যান্ড। এ সময় তাদের হয়ে টেলর ৮৫ বল থেকে ৬৭ রান নিয়ে দ্বিতীয় ব্যাটিং করবেন। টম ল্যাথাম ৩ রান নিয়ে তার সঙ্গী হবেন।

মন্তব্য: