সদ্য শেষ হওয়া ত্রিদেশীয় টি-টোয়েন্টি সিরিজের পারফরম্যান্স বাংলাদেশ দলের ক্রিকেটারদের ব্যক্তিগগ র‌্যাঙ্কিংয়ের উপর নেতিবাচক প্রভাব ফেলেছে। তবে বাংলাদেশের সঙ্গে এই সিরিজে যৌথভাবে চ্যাম্পিয়ন হওয়া আফগানিস্তানের ক্রিকেটাররা র‌্যাঙ্কিংয়ে নজর কেড়েছেন।

সিরিজে চার ম্যাচে ব্যাট হাতে ৯৬ রান করে ব্যাটিং র‌্যাঙ্কিংয়ে অবনতি হয়েছে সাকিব আল হাসানের। মাহমুদুল্লাহর সঙ্গে যৌথভাবে তিনি ৩২তম অবস্থানে রয়েছেন। বাকিদের মধ্যে লিটন ৪৪ ও মুশফিক ও সৌম্যর অবস্থান যথাক্রমে ৫১ ও ৫২।

বোলিংয়ে সেরা দশের মধ্যে থাকলেও এক ধাপ নেমে সাকিবের অবস্থান এখন আটে। বল হাতে সাকিব চার ম্যাচে নিয়েছেন চার উইকেট। বোলিংয়ে মুস্তাফিজুর রহমান আছেন র‍্যাঙ্কিংয়ের ২৮ নম্বরে। তৃতীয় সেরা মাহমুদউল্লাহ দুই ধাপ পিছিয়ে নেমেছেন ৫৬ নম্বরে।

আলরাউন্ডার র‌্যাঙ্কিংয়ে আগের দ্বিতীয় অবস্থানেই রয়েছেন সাকিব। এই তালিকায় নবীও আগের মতো তৃতীয় অবস্থান ধরে রেখেছেন। এক ধাপ নিচে পাচে রয়েছেন মাহমুদুল্লাহ।

অন্যদিকে টি-টোয়েন্টি ব্যাটিং র‌্যাঙ্কিংয়ে প্রথমবারের মতো পাঁচ নম্বর অবস্থানে উঠে এসেছন আফগান ব্যাটসম্যান হাসমতুল্লা। চার ম্যাচে তিনি করেছিলেন ১৩৩ রান। নবী আছেন র‌্যাঙ্কিংয়ের ২৭তম অবস্থানে।

ত্রিদেশীয় সিরিজ শেষে টি-টোয়েন্টিতে সবচেয়ে বড় চমকটি দেখিয়েছেন আফগান বোলার মুজিব উর রহমান। শীর্ষে থাকা রশিদ খানের সঙ্গে আইসিসি টি-টোয়েন্টি বোলারদের র‍্যাঙ্কিংয়ের সেরা দশে জায়গা করে নিয়েছেন তিনি। ত্রিদেশীয় টি-টোয়েন্টি সিরিজের পারফরম্যান্সে এক লাফে ২৯ ধাপ এগিয়ে মুজিব এখন নয়ে।

দলীয় র‍্যাঙ্কিংয়ে বাংলাদেশ আগের মতোই আছে দশ নম্বরে থাকলের নয়ে থাকা ওয়েস্ট ইন্ডিজের সঙ্গে পয়েন্ট ব্যবধান কমিয়ে এনেছে। ২২০ রেটিং পয়েন্ট নিয়ে শুরু করে বাংলাদেশ টুর্নামেন্ট শেষ করেছে ২২৩ রেটিং পয়েন্টে। অন্যদিকে ওয়েস্ট ইন্ডিজের নামের পাশে রয়েছে ২২৪ রেটিং পয়েন্ট।

মন্তব্য: