গতকাল রাজকোটে ভারতের বিপক্ষে সিরিজের দ্বিতীয় টি-টোয়েন্টি ম্যাচে দারুন শুরু করেছিলেন লিটন দাস ও মোহাম্মদ নাঈম। মনে হয়েছিল এই দুজনের বাটে ভর করে বড় সংগ্রহের পথে যাচ্ছে বাংলাদেশ। কিন্তু, ভারতের উইকেটরক্ষকের ভুলে জীবন পেলেও লিটনের মধ্যে দায়িত্ব নেয়ার প্রবণতা দেখা যায়নি।

আজ সংবাদসম্মেলনে বাংলাদেশের টি-টোয়েন্টি অধিনায়ক মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ লিটন সম্পর্কে অনেক কথাই বললেন। নিজের ভুলগুলো সংশোধন করে লিটন পরের ম্যাচে ভালো খেলবে এমন প্রত্যাশা করেন অধিনায়ক।

মাহমুদউল্লাহ সাংবাদিকদের বলেন, ‘লিটন সব সময় এমন আক্রমণাত্মক খেলে থাকে। আমরা জানি ও খুবই ভালো এবং ট্যালেন্টেড ব্যাটসম্যান। হয়তো ওর দিনে ও একাই টেনে নিয়ে যাবে। ওইদিনটা সামনের ম্যাচেই আমরা পাবো ইনশাআল্লাহ। একবার দুইবার না, ও তো ধারাবাহিকভাবে এই ফরম্যাটে ভালো ব্যাটিং করছে। দল হিসেবে আমরা প্রত্যাশা করি যে ওর ওই ক্ষমতা আছে একটা বড় ইনিংস খেলার। তাহলে যদি আমাদের রানটা আরেকটু বাড়তে পারে। আশা করছি নিজের ভুলগুলো সে বুঝতে পারবে এবং পরের ম্যাচে আরও ভালোভাবে রান করবে।’

রাজকোটে ভারতকে ১৫৪ রানের চ্যালেঞ্জ দিলেও আরও বড় টার্গেট দেয়ার ক্ষমতা টাইগারদের ছিল বলে মনে করেন রিয়াদ। তবে যুজবেন্দ্র চাহালের বলেই আটকে গেছে বাংলাদেশ। চাহালের বিপক্ষে বাংলাদেশি ব্যাটসম্যানদের ব্যাটিং প্রসঙ্গে মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ বললেন,

‘আমাদের শেষ পাঁচ ওভারে পাঁচ উইকেট হাতে ছিল। শেষ পাঁচ ওভারে আমরা ওরকম রান তুলতে পারিনি। ওদেরও ওইরকম কৃতিত্ব দিতে হবে। ওদের এক্সিকিউশন ভালো ছিল। আমাদের আরও ভালো করা উচিৎ ছিল। কারণ উইকেট ভালো ছিল, আমরা যদি গ্যাপ গুলোতে রান বের করতে পারতাম হয়তো আরও কিছু রান আসতো।’

রিয়াদ আরও বলেন, ‘আমরা এটা জানি যে ওদের স্ট্রাইক বোলার চাহাল। মিডেল ওভারে আমরা যেটা বুঝলাম ওদের উইকেটের প্রয়োজন হলেই ওরা চাহালকে ব্যবহার করে। আমরা ওইভাবে চিন্তা করছিলাম না যে ও ওদের স্ট্রাইক বোলার বা মেইন বোলার। আমরা চিন্তা করছিলাম ওর বিপক্ষে কতটুকু কম ঝুঁকি নিয়ে বা গ্যাপ খুঁজে রান করতে পারি। আমরা নেতিবাচক মাইন্ডসেটে ওর বিপক্ষে ব্যাটিং করিনি।’

মন্তব্য: