সাকিব আল হাসান বরাবরই বিশ্বের সেরা অলরাউন্ডার হিসেবে পরিচিত প্রায় এক দশক ধরে। তবে সাম্প্রতিক বছরগুলোতে সাকিবের বোলিং পারফরমেন্স ব্যাটিংয়ের চেয়ে অনেকটাই এগিয়ে ছিল। ভারতের সাবেক কিংবদন্তি পেসার জহির খান ও জনপ্রিয় ধারাভাষ্যকার হার্শা ভোগলে এই পরিসংখ্যানের বিপক্ষে কথা বললেন।

সাকিবকে অলরাউন্ডার মানতে নারাজ ভারতের সাবেক তারকা পেসার জহির খান মনে করেন সাকিব এক বড় মাপের ব্যাটসম্যান, যে কিনা বোলিংটাও ভালো করে। গত সোমবার বিশ্বকাপের ম্যাচে ব্যাট হাতে ৯৯ বলে ১২৪ রানের অপরাজিত এক অসাধারণ ইনিংস খেলে উইন্ডিজকে প্রায় একাই হারিয়ে দিয়েছেন সাকিব।

ক্যারিবিয়ানদের বিপক্ষের ম্যাচ নিয়ে কথা বলতে যেয়ে জহির খান বলেন, ‘সাকিবকে তিনে ব্যাটিং করতে দেওয়ার কৌশলটা খুবই কাজে লেগেছে বাংলাদেশের। এটা খুব ভালো একটা সিদ্ধান্ত ছিল। এটাকে খুব কার্যকরী সিদ্ধান্ত বলা যায়। এতদিন সাকিবকে বাংলাদেশ একজন অলরাউন্ডারের দৃষ্টিতে দেখে এসেছে। এখন এসে দেখা গেল ও যত বেশি না একজন অলরাউন্ডার তার চেয়ে বড় মাপের ব্যাটসম্যান। ও হচ্ছে এমন একজন ব্যাটসম্যান যে একই সাথে ভালো বোলিংও করতে পারে।’

জহিরের কথায় সুর মিলিয়েছেন জনপ্রিয় ভারতীয় ধারাভাষ্যকার হার্শা ভোগলে। হার্শা বলেন, ‘(বিশ্বকাপে) আপনি ওর স্কোরগুলো কেবল দেখেন – ১২৪, ১২১, ৬৪ ও ৭৫। এই স্কোরগুলো দেখে মনে হতে পারে ও মূলত একজন ব্যাটসম্যান, যে কি না বোলিং করতে পারে। ও রোজ আপনার জন্য ১০টা ওভার বোলিং করে দিবে। ইংল্যান্ডের বিপক্ষে ওর বোলিং ফিগার দেখলে সাদামাটা মনে হতে পারে। কিন্তু ও আসলে শুরুটা ভালোই করেছিল। কিন্তু শেষে একটু রান দিয়ে ফেলে। এর বাইরে ৪৭ রানে দুই উইকেট, ৫০ রানে এক উইকেট সবগুলো পারফরম্যান্সই দারুণ ছিল।’

মন্তব্য: