রবিবার ওভালে হাইভোল্টেজ ম্যাচে অস্ট্রেলিয়াকে ৩৬ রানে হারিয়ে বিশ্বকাপ আসরে টানা দ্বিতীয় জয় তুলে নিলো ভারত। তাদের দেওয়া ৩৫৩ রানে তাড়া করতে নেমে ৩১৬ রান অলআউট হলো ওয়ার্নাররা। তিন ম্যাচ শেষে অস্ট্রেলিয়ার জয় দুই ম্যাচে।

ভারতের দেওয়া পাহাড়সম রান তাড়া করতে নেমে ব্যাটিং উদ্ধোধন করতে আসেন ওয়ার্নার ও ফিঞ্চ। বড় রান তাড়া করতে ধীর গতিতে শুরু করেন। এই জুটির ৬১ রানের মাথায় রান আউটে কাটা পড়েন ফিঞ্চ।

১৪তম ওভারের প্রথম বলে কেদার যাদব ও পান্ডের যুগলবন্ধীতে ৩৫ রানে ফেরেন ফিঞ্চ। দ্বিতীয় উইকেটে ওয়ার্নারকে নিয়ে জুটি গড়েন স্মিথ। এই জুটিতে ৭২ রানে আসে। এরপরই ওয়ার্নারের গুরুত্বপূর্ণ উইকেটটি তুলে নেন চাহল।

দলীয় ১৩৩ রানের সময় চাহালকে তুলে মারতে গিয়ে ভুবনেশ্বরের হাতে ক্যাচ আউট হন তিনি ওয়ার্নার প্যাভিলনে ফেরার আগে ৮৪ বল থেকে ৫টি বাউন্ডারিতে ৫৬ রান করেন।

তৃতীয় উইকেটে এখন স্মিথ ও খাজা ব্যাট যোগ করেন ৬৯ রান। দলীয় ২০২ রানে খাজাকে ৪২ রানে বোল্ড আউট করেন বুমরা। এই জুটির ভাঙার পর নিয়মিত বিরতিতে উইকেট হারাতে থাকে অস্ট্রেলিয়া।

ইনিংসের ৪০তম ওভারে স্মিথ ও স্টনিসের জোড়া উইকেট তুলে নেন ভুবনেশ্বর। স্মিথ ৬৯ রান করলেও রানেই খাতাই খুলতে পারেননি স্টনিস।
দলীয় ২৩৮ রানে ৫ উইকেট হারানো অস্ট্রেলিয়ার শেষ ভরসা ম্যাক্সওয়েল ফেরেন ৬ রানের ব্যবধানে। ১৪ বল থেকে ২৮ রান করে চাহলের বলে ক্যাচ দিয়ে বিদায় নেন তিনি।

এরপর অস্ট্রেলিয়ার পরাজয়টা ছিল সময়ের ব্যাপার। বাকিটা সময়ে অ্যালেক্স ক্যারি ৩৫ বল থেকে ৫৫ রানের ইনিংস খেলে অপরাজিত থাকলেও বাকিরা কেউ তাকে যোগ্য সঙ্গ দিতে পারেননি। ফলে নির্ধারিত ৫০ ওভার শেষে ১০ উইকেট হারিয়ে ৩১৬ রানে শেষ হয় অস্ট্রেলিয়ার ইনিংস।

ভারতের হয়ে বুমড়া ও ভুবনেশ্বর ৩টি করে উইকেট নেন। এছাড়া চাহল নেন ২টি উইকেট।

মন্তব্য: