হাফ ছেড়ে বাঁচলেন সানজামুল

sunzamul islam,cricket,test,bangladesh
অভিষেক টেস্টে বল হাতে জ্বলে উঠতে পারলেন না সানজামুল। ছবি : নিউ এইজ

চট্টগ্রামের জহুর আহমেদ চৌধুরী স্টেডিয়ামে লঙ্কানদের বিপক্ষে ৮৭তম বাংলাদেশি হিসেবে টেস্ট অভিষেক হয় সানজামুলের। এটা তার মনে রাখার মতো একটি ম্যাচ। শুধু অভিষেক হিসেবে নয়, আরো একটি কারণেও মনে রাখবেন তিনি।

সেঞ্চুরি করে ফেলেছেন অভিষেকে,তবে ব্যাট হাতে নয়; বল হাতে রান দিয়ে! অভিষেক হওয়া ম্যাচে চতুর্থ বাংলাদেশি হিসেবে কোনো উইকেট শিকার না করে ১০০ রান দিয়েছেন তিনি। শেষ পর্যন্ত এমন ফলশূন্য হয়ে অভিষেকে ১০০ রান দিয়ে উইকেটশূন্য থাকার রেকর্ড করলেন। এর আগে টেস্ট ইতিহাসে এমন বাজে অভিজ্ঞতার মুখোমুখি হয়েছিল আরো ২৬ জন বোলার।

এছাড়াও বাংলাদেশের আরো চারজন খেলোয়াড় এমন রেকর্ড করেছিলেন। তারা হলেন ফাহিম মুনতাসির, শাহাদাত হোসেন, রবিউল ইসলাম আর আবুল হাসান।

অভিষেকে ১০০ রান দিয়ে উইকেটশূন্য থাকা ২৬ বোলারের নামগুলোর দিকে তাকালে সানজামুল হয়ত আর আশার আলো দেখবেন না। এদের বেশির ভাগের টেস্ট ক্যারিয়ার পরে সুপ্রসন্ন হয়নি। সিংহভাগেরই ক্যারিয়ার শেষ হয়ে গেছে এক-দুই টেস্ট খেলে।

শুরুতে না পারলেও সেই ধাক্কা সামলে ৫১ টেস্টে ২০০ উইকেট নিয়ে ক্যারিয়ার শেষ করেছিলেন ‘থম্মো’খ্যাত জেফ থমসন নামের একজন খেলোয়াড়ই। এরপর মাত্র ৫ জন খেলোয়াড় আছেন যারা কমপক্ষে ৫০ উইকেট নিতে পেরেছেন, তাঁদের মধ্যে আছেন বাংলাদেশের পেস বোলার শাহাদাত হোসেন। আছেন ভারতের বাপু নাদকার্নি কিংবা পাকিস্তানের আকিব জাভেদ।

শেষ পর্যন্ত সানজামুল একটি উইকেট পেয়েছেন। যার ফলে তিনি বেঁচে গেছেন বিচ্ছিরি এক অভিজ্ঞতা থেকে। কারণ ১৫০ রান দিয়ে উইকেটশূন্য থাকলে গড়তেন আরো একটি লজ্জার রেকর্ড! তবে শেষ পর্যন্ত ৪৫ ওভার বল করে ১৫৩ রান দিয়ে পেয়েছেন ১ টি উইকেট।
এছাড়া ২০১৫ দুবাই টেস্টে পাকিস্তানের বিপক্ষে ১৬৩ রান দিয়ে কোনো উইকেট না পাওয়া ইংলিশ ক্রিকেটার আদিল রশিদের রেকর্ডটাও কিন্তু চোখ রাঙাচ্ছিল সানজামুলকে!

আরও পড়ুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *