ভারতীয় ক্রিকেট মহলে এখন আলোচনার কেন্দ্রে রয়েছে ধোনির অবসর প্রসঙ্গ। তবে সব সমালোচনা ও বিতর্ক এড়িয়ে দু মাসের জন্য ধোনি যোগ দিলেন ভারতীয় সেনবাহিনীতে।

ভারতীয় সমর্থকরা প্রত্যাশা করেছিলেন বিশ্বকাপ মঞ্চেই ক্রিকেটকে বিদায় জানাবেন সাবেক ভারতীয় ধোনি। কিন্তু বিশ্বকাপে অবসরের ঘোষণা না দিলে ধোনির বিশ্বকাপে বাজে পারফরম্যান্স ও সেমিফাইনালে নিউজিল্যান্ডের সাথে পরাজয়ে সে বিতর্ক আরো জোরদার হয়। তাই তো বিসিসিআই ধোনিকে সম্মানের সাথে অবসর নেওয়ার অনুরোধও জানিয়েছিল।

আর এই সব জল্পনার মধ্যেই শনিবার বিসিসিআই-কে নিজের সিদ্ধান্তের কথা জানিয়ে দিলেন ক্যাপ্টেন কুল খ্যাত মহেন্দ্র সিং ধোনি। তিনি আপাতত দু-মাস ক্রিকেটের বাইরে থাকবেন। ক্রিকেট সরিয়ে তিনি প্যারা মিলিটারি ফোর্সের ট্রেনিংয়ে যোগ দেবেন। তাই তাকে যেন আসন্ন উইন্ডিজ সফরের জন্য বিবেচনা না করা হয়। কার্যত এমন ভাষাতেই এবার প্যারাশুট রেজিমেন্টের সাম্মানিক লেফটেনেন্ট কর্ণেল মাহেন্দ্র সিং ধোনি বিসিসিআইকে জানিয়ে দিলেন তাঁর পরিকল্পনার কথা।

ধোনির বন্ধু অরুণ পাণ্ডে কয়েক ঘণ্টা আগেই জানিয়েছিলেন আপাতত অবসরের কোনও পরিকল্পনাই নেই ধোনির। অর্থাৎ অবসর নয়, ক্ষণিক ক্রিকেট থেকে দূরে থেকে তারপরে আবার পূর্ণোদ্যমে বাইশ গজে ফিরতে চান তিনি।

ধোনিকে আগেই টেরিটোরিয়াল আর্মির প্যারাসুট রেজিমেন্টের সম্মানিত লেফটেন্যান্ট কর্ণেলের মর্যাদা দেওয়া হয়েছিল। ধোনিকে প্রায়ই ক্রিকেট সফরের মাঝে সেনাবাহিনীর সঙ্গে দেখা যায়। সেনাবাহিনীর প্রতি ভালোবাসা বরাবরই ব্যক্ত করেছেন তিনি। চলতি বিশ্বকাপেও সেনাবাহিনীর লোগো গ্লাভসে ব্যবহার করে বিতর্কে জড়িয়েছিলেন তিনি। বিতর্ক এড়াতেই কী ধোনি এবার সেনাবাহিনীতে চললেন, প্রশ্ন উঠছে। যদিও ধোনির এই সিদ্ধান্তে আপাতত স্বস্তিতে নির্বাচকরাই।

সবশেষে ধোনি অবসর নেওয়ার জন্য কোনো ম্যাচ পাবেন তো? তাকে একবারে ভারতীয় টিম থেকে ছিটকে পড়তে দেখলেও অবাক হওয়ার কিছু থাকবে না, কেননা দীর্ঘমেয়াদি পরীকল্পনার জন্য নতুনদের সুযোগ করে দিতে যে বদ্ধ পরিকর ইন্ডিয়ান টিম ম্যানেজমেন্ট।

মন্তব্য: