টানা পরাজয়ের মধ্যে থাকা বাংলাদেশ দলের জন্য শুধুমাত্র একটি জয়ই পারতো পরিস্থিতি কিছুটা স্বাভাবিক হলেও করতে। অবশেষে সেই আরধ্য জয়টা এলো শুক্রবার জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে। বাংলাদেশের হয়ে আট নম্বরে ব্যাট করতে নেমে আফিফ হোসেন ধ্রুব ২৬ বলে ৫২ রানের তাণ্ডব চালিয়ে হয়েছেন ম্যাচসেরা।

এই তাণ্ডব চালানোর পথে ২৪ বল থেকে ক্যারিয়ারের দ্বিতীয় ম্যাচেই অর্ধশতক তুলে নেন আফিফ হোসেন। ৮টি চার ও ১টি ছক্কায় হাফ সেঞ্চুরি পূরণ করেও হাফ-সেঞ্চুরি উদযাপন করেননি তিনি। আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে নিজের প্রথম হাফ সেঞ্চুরি কোনো উদযাপন করেননি সেই প্রশ্নের উত্তর দিয়েছেন সংবাদ সম্মেলনে।

আফিফ বলেন, “সত্যি বলতে হাফ সেঞ্চুরি যে হয়েছে খেয়ালই করিনি। বুঝতে পারার পর চিন্তা ছিল একেবারে ম্যাচ জিতেই উদযাপন করব। কিন্তু করতে পারিনি, তার আগেই আউট হয়ে গেলাম।”

তার এই ইনিংসে দল জেতায় আনন্দের শেষ নেই আফিফের, “এমন একটা ইনিংস খেলে দেশকে জেতাতে পারার অন্যরকম আনন্দ। এই অনুভূতি বলে প্রকাশ করা যাবে না। অন্যরকম এক অনুভূতি। এতদিন পর জাতীয় দলে ফিরে এমন একটা ইনিংস খেলেছি, দর্শকরা খুশি হয়েছে- এটা আনন্দদায়ক ছিল। ইচ্ছা পূরণ হল।”

৬০ রানে ৬ উইকেট হারিয়ে চরম বিপর্যয়ে পড়া বাংলাদেশ দলকে একাই টেনে তোলেন আফিফ। ২৪ বলে হাফ সেঞ্চুরি পূরণ করে তিনি ভাগ বসিয়েছেন দেশের হয়ে মুশফিকুর রহিম ও লিটন কুমারের দ্রতুতম হাফ সেঞ্চুরির রেকর্ডে।

মন্তব্য: