চলমান আইপিএলের নতুন বিতর্কের জন্ম দেয়ার পর নিজের পক্ষেই সাফাই গেয়েছেন ভারতীয় ক্রিকেটের রবি চন্দন অশ্বিন।

জয়পুরে কিংস ইলেভেন পাঞ্জাব ও রাজস্থান রয়্যালসের মধ্যকার ম্যাচে মানকড় আউটের মাধ্যমে নতুন বিতর্কের জন্ম দেন তিনি। অশ্বিন বিতর্কিত হয়েছেন জর্জ বাটলারকে অদ্ভুত ভাবে রানআউট করে।

পাঞ্জাবের ছুড়ে দেয়া ১৮৫ রানের লক্ষে ব্যাট করতে নেমেছিল রাজস্থান। বাটলারের ব্যাটে ভর করে ভালো শুরুও পেয়েছিলো দলটি। তবে ইংলিশ এই উইকেট রক্ষক ব্যাটসম্যানের ইনিংসের ইতি ঘটে অশ্বিনের অখেলারু সুলভ আচরণে।

অশ্বিনের আচরণ খেলোয়াড়সুলভ ছিল কিনা এ নিয়ে বিতর্ক হতেই পারে। তবে তিনি যেভাবে বাটলারকে সাজঘরে ফিরতে বাধ্য করেছেন তা অন্তত নিখাত ক্রিকেটপ্রেমীরা মেনে নিতে পারবে না।

রাজস্থান ইনিংসের ১৩ তম ওভারের শেষ বল করছিলেন অশ্বিন। স্ট্রাইকিং প্রান্তে এসময় ছিলেন সঞ্জু স্যামসং। বাটলার ছিলেন নন স্ট্রাইক প্রান্তে। অশ্বিন ওভারের শেষ বলটি করার জন্য ছোট রানআপে দৌড়ে এলে ক্রিজ থেকে বেরিয়ে যান বাটলার। তবে এসময় অশ্বিন সবাইকে অবাক করে দিয়ে বল করা থেকে বিরত থেকে বাটলারের প্রান্তে স্ট্যাম্পে বল স্পর্শ করেন।

এতে মানকড় আউট হয়ে যান বাটলার। নিজের দল কিংস ইলেভেন পাঞ্জাব জয় পেলেই বিতর্কিত হতে হয়েছে অশ্বিনকে।

ম্যাচ শেষে পাঞ্জাবের অধিনায়ক বলেন, ‘ এই বিষয়ে তর্কে যেতে চাই না আমি। এটি একজন বোলারের স্বাভাবিক প্রবৃত্তি। আমি বল ছাড়ার আগে সে ক্রিজ থেকে বেরিয়ে যায়’

অনেক সমালোচনার পরেও প্রতিপক্ষ দলের সেট ব্যাটসম্যানকে এভাবে আউট করা দোষের মনে করেন না অশ্বিন।

তার ভাষ্য, ‘ আমি এটা করতেই পারি। কারণ ক্রিজের অর্ধেক আমার। সে আমার দিকে না তাকিয়ে শুধু তার জায়গা থেকে বেরিয়ে গেছে।’

ক্রিকেটীয় দৃষ্টিকোণ থেকে এটি আউট হলেও প্রতিপক্ষ দলের ফর্মে থাকা ব্যাটসম্যানকে এভাবে আউট করা অনেকে স্পোর্টম্যানশিপ রক্ষা না করার অভিযোগ তুলেছেন অশ্বিনের বিরুদ্ধে।

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেইসবুক ও টুইটারে অনেকেই অশ্বিনের মুণ্ডুপাত করছেন।

ইংল্যান্ডের ওয়ানডে দলের অধিনায়ক মর্গ্যানের টুইট, ‘বিশ্বাসই করতে পারছি না। নতুন প্রজন্মের ক্রিকেটারদের কাছে এর চেয়ে শোচনীয় উদাহরণ আর কিছু হতে পারে না।’

এদিকে ইংল্যান্ড ক্রিকেটার জেসন রয়ের টুইট, ‘অশ্বিনের এই ক্রিকেটীয় আচরণে লজ্জিত। এর চেয়ে দুর্ভাগ্যজনক কিছু হতে পারে না।’

তাছাড়া দক্ষিণ আফ্রিকার পেসার ডেল স্টেইন টুইটারে লিখেছেন, ‘ক্রিকেটীয় স্পিরিটের কোনও সম্মানই প্রাপ্য নয় অশ্বিনের জন্য।’

এদিকে প্রাক্তন ভারতীয় তারকা মোহাম্মদ কাইফের টুইট, ‘হয়তো নিয়মের মধ্যে থেকেই অশ্বিন আউট করেছে। কিন্তু ওর এক বার বাটলারকে সতর্ক করা উচিত ছিল। সেটা না করাতেই বিস্মিত।’

কাইফ টুইটে আরও লিখেছেন, ‘এর আগেও একটা আন্তর্জাতিক ম্যাচে অশ্বিন এই ঘটনা ঘটিয়েছিল। শেবাগ সেই আবেদন পরে ফিরিয়ে নিয়েছিল।’

এদিকে পিয়ের্স মর্গ্যানের টুইট, ‘এই অক্রিকেটীয় আচরণের জন্য লজ্জাবোধ করছি।’

মন্তব্য: