এক মাসের ও কম সময় বাকি আছে আসন্ন ইংল্যান্ড বিশ্বকাপের। এই সময় সাবেক অনেক ক্রিকেটারই নিজেদের পছন্দের সর্বকালের সেরা বিশ্বকাপ একাদশ বেছে নিচ্ছেন। পাকিস্তানী ক্রিকেটার শাহীদ আফ্রিদীও তেমনটাই করলেন। কিন্তু তার পছন্দের একাদশে জায়গা পাননি ভারতের ক্রিকেট ইশ্বর শচীন টেন্ডুলকার ও বিশ্বকাপ জয়ী অধিনায়ক মহেন্দ্র সিং ধোনি।

ভারতীয় দলের জার্সি গায়ে এটাই যে তাঁর শেষ ওয়ানডে বিশ্বকাপ, তা নিয়ে আর সংশয় নেই। তবে টিম ইন্ডিয়ায় ৩৭ বছরের মহেন্দ্র সিং ধোনির গুরুত্ব কতটা, সে বিষয়ে অবগত বিশ্ব ক্রিকেট মহল। বিশেষজ্ঞরা তো বলেই দিচ্ছেন, বিরাট কোহলির দলের প্রধান ভরসা ধোনিই। আর সেখানে কিনা, শাহিদ আফ্রিদির বেছে নেওয়া সেরা বিশ্বকাপ দলে ঠাঁই-ই হল না মাহির! শুধু ধোনি কেন, আফ্রিদি তাঁর স্বপ্নের দলে জায়গা দেননি শচীন টেন্ডুলকারকেও।

২০১১ সালে ধোনির নেতৃ্ত্বেই দ্বিতীয়বার বিশ্বজয়ের স্বাদ পেয়েছিল ভারত। নেতা হিসেবেই নয়, ব্যাট হাতেও নিজেকে বারবার সেরা ফিনিশার প্রমাণ করেছেন তিনি। সেই দলেরই অন্যতম সদস্য ছিলেন মাস্টার ব্লাস্টার। শুধু কি তাই? ছয়-ছয়টি বিশ্বকাপ খেলেছেন লিটল মাস্টার। ৪৪টি ইনিংসে তাঁর সংগ্রহ ২২৭৮ রান। ছ’টি সেঞ্চুরি ও ১৬টি অর্ধ শতরান হাঁকিয়েছেন তিনি। বিশ্বজয়ী সেই দলের দুজনকেই নিজের দল থেকে বাদ দিয়েছেন পাকিস্তানের প্রাক্তন অধিনায়ক আফ্রিদি। যে বিষয়টি মোটেই ভালভাবে নিচ্ছে না ভারতীয় ক্রিকেটপ্রেমীরা। এনিয়ে ইতিমধ্যেই সমালোচনা শুরু হয়েছে। বুমবুমের বিশ্ব সেরা একাদশে মাত্র একজন ভারতীয় তারকা রয়েছেন। তিনি অধিনায়ক বিরাট কোহলি। আর কোনও ভারতীয়কেই সেরার তকমা দেননি আফ্রিদি। বিশ্বকাপের জন্য তাঁর বাছা সেরা একাদশ এরকম।

আফ্রিদীর দেওয়ার সর্বকালের বিশ্বসেরা একাদশ:

সাইদ আনোয়ার, অ্যামাড গিলক্লিস্ট, রিকি পন্টিং, বিরাট কোহলি, ইনজামাম-উল-হক, জ্যাক ক্যালিস, ওয়াসিম আকরাম, গ্লেন ম্যাকগ্রা, শেন ওয়ার্ন, শোয়েব আখতার এবং সাকলিন মুশতাক।

মন্তব্য: