২০০৯ সালে পাকিস্তানে বোমা হামলার শিকার হয়েছিলেন শ্রীলংকার ক্রিকেটাররা। লাহোরের গাদ্দাফি স্টেডিয়ামের কাছে ২০০৯ সালের ৩ মার্চ গাড়ি বোমা হামলার শিকার হয় শ্রীলঙ্কান ক্রিকেট দল। সেদিন ছিলো লাহোর টেস্টের তৃতীয় দিন। সে হামলায় গুরুতর আহত হন ছয়জন লঙ্কান ক্রিকেটার। হামলার পর জরুরী ভিত্তিতে দেশে ফিরে যায় শ্রীলঙ্কান ক্রিকেট দল।

সেদিনের হামলার পর থেকে আর টেস্ট ম্যাচ হয়নি পাকিস্তানের মাটিতে।দেশটির সংবাদমাধ্যম ‘এয়ারিনিউজ’ প্রকাশ করেছে, অবশেষে প্রায় দশ বছরের বেশি সময় পর সেই শ্রীলঙ্কার বিপক্ষেই আবারো ঘরের মাঠে টেস্ট খেলতে যাচ্ছে পাকিস্তান।

তাদের দেয়া খবর অনুযায়ী চলতি বছর থেকে শুরু হতে যাওয়া আইসিসির বিশ্ব টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপ খেলার উদ্দেশ্যে পাকিস্তান যাবে শ্রীলঙ্কান ক্রিকেট দল। সূচি এখনো চূড়ান্ত না হলেও, দুই বোর্ডের মধ্যে কথা পাকাপাকি হয়ে গেছে বলে জানিয়েছে পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ডের সূত্র।

পাকিস্তান আইসিসির বিশ্ব টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের প্রথম লেগে বাংলাদেশ, শ্রীলঙ্কা এবং অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে খেলবে। ২০২০ সালের মধ্যেই যা শেষ হবে।

অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষের ম্যাচ দুইটি সে দেশে গিয়ে খেললেও, বাংলাদেশের বিপক্ষে ম্যাচ দুটিও শ্রীলঙ্কার মতোই ঘরের মাঠে খেলতে চাইছে দেশটির ক্রিকেট বোর্ড।

শুধুমাত্র শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে ম্যাচ দুইটিই হয়তো ঘরের মাঠে খেলতে পারবে পাকিস্তান। কারন বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের পক্ষ থেকে এমন কোনো প্রতিশ্রুতি বা চুক্তি করা হয়নি। তবে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের সাথে কথা বলছে তারা। আর এমনটা হলে দীর্ঘ ১০ বছর পর নিজেদের মাটিতে টেস্ট ম্যাচ আয়োজন করার সুখস্মৃতি পাবে পাকিস্তানিরা।

মন্তব্য: