২০১৭ সালে ইংল্যান্ডের মাটিতে হওয়া চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফির ফাইনালের ‘নায়ক’ মোহাম্মদ আমিরকে বাইরে রেখে বৃহস্পতিবার বিশ্বকাপের জন্য ১৫ সদস্যের দল ঘোষণা করে পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ড। এছাড়া ঘোষিত দলে জায়গা হয়নি হার্ড-হিটার ব্যাটসম্যান আসিফ আলীর। তবে বিশ্বকাপ দলে এই দুই ক্রিকেটারের জায়গা করে নেওয়ার সুযোগ এখনো রয়েছে বলে জানিয়েছেন পিসিবির প্রধান নির্বাচক ও সাবেক অধিনায়ক ইনজামাম উল হক।

আমির-আসিফ ফর্মহীনতার কারনেই বিশ্বকাপে দলে সুযোগ পাননি। সর্বশেষ ১৪ ওয়ানডেতে মাত্র ৫ উইকেট শিকার করেছেন আমির। ১০১ ওভার বল করে ৯২ দশমিক ৬০ গড়ে উইকেটগুলো নিয়েছেন তিনি। রান দিয়েছেন ৪৬৩। এছাড়া পিএসএলের সর্বশেষ পাঁচ ম্যাচে ৭ উইকেট নিয়েছেন তিনি।

হার্ড-হিটার ব্যাটসম্যান হিসেবেই পরিচিত আসিফ। কিন্তু পাকিস্তানের ১১টি ওয়ানডেতে মাত্র ১টি হাফ-সেঞ্চুরি করেছেন তিনি। ১৯ টি-২০ ম্যাচে কোন হাফ-সেঞ্চুরি নেই। তবে দু’ফরম্যাটেই তার স্ট্রাইক রেট ১৩০-এর উপর। তাই ফর্ম নিয়ে ভুগতে থাকায় বিশ্বকাপ দলে সুযোগ পেলেন না আফিস।

তবে এই দু’খেলোয়াড়ের বিশ্বকাপ দলে সুযোগ পাবার একটি সুযোগ থাকছে। বিশ্বকাপের আগে ইংল্যান্ডের বিপক্ষে একমাত্র টি-২০ ও পাঁচ ম্যাচে সিরিজে ভাল পারফরমেন্স করতে পারলেই বিশ্বকাপ দলে সুযোগ পেতে পারেন আমির-আসিফ, তা স্পষ্ট জানিয়েছেন ইনজামাম।

তিনি বলেন, ‘বিশ্বকাপে খেলার সুযোগ এখনও আছে আমির-আসিফের। ইংল্যান্ডের বিপক্ষে ভাল পারফরমেন্স করতে পারলেই দলে সুযোগ পাবেন তারা। আমরা আশা করছি, আমির-আসিফ ভালো কিছু করে দেখাবেন। কারন আন্তর্জাতিক অঙ্গনে আমিরের অভিজ্ঞতা অনেক। ইংল্যান্ডের কন্ডিশনেও সে ভালো করেছে। গত চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফিতে রেকর্ড তেমনই বলে। আসিফ মারকুটে ব্যাটসম্যান। বড় ইনিংস খেলতে পারলে বিশ্বকাপের দলে সুযোগ পেতে পারেন তারা।’

বিশ্বকাপ দল ঘোষনার পরও আইসিসির নিয়নুযায়ী আগামী ২৩ মে পর্যন্ত দলে পরিবর্তন করা যাবে। সেই সুবাদে আমির-আসিফের বিশ্বকাপে সুযোগের কথা বললেন ইনজামাম।

আগামী ৩ জুন আয়োজক ইংল্যান্ডের বিরুদ্ধে বিশ্বকাপ অভিযান শুরু করবে পাকিস্তান। তার আগে আগামী ২৩ এপ্রিল মরগানদের বিরুদ্ধে দ্বিপাক্ষিক সিরিজ খেলতে ইংল্যান্ড উড়ে যাচ্ছেন সরফরাজরা।

মন্তব্য: