দীর্ঘ নয় বছর লা লিগায় মেসি ও রোনালদোর প্রতিদ্বন্দ্বিতা দেখেছে ফুটবল বিশ্ব। এই বছর গুলোতে রোনালদো গোল করলে অবধারিত ভাবে মেসিকেও যেন গোল করতেই হবে। এ যেন অলিখিত নিয়ম হয়ে গিয়েছে। রোনালদো লিগ বদলালেও সেই নিয়মের বদল এখনও হয়নি। এ বারের উয়েফা চ্যাম্পিয়ন্স লিগে আটলেটিকো মাদ্রিদকে একাই হারিয়ে দিয়েছিলেন রোনালদো। পরের দিন মেসি-মায়ায় শেষ লিয়ঁ।

গেল গ্রীষ্মে রোনালদো পাড়ি জমিয়েছেন ইতালিতে। যোগ দিয়েছেন জুভেন্টাসে। রোনালদো চলে যাওয়ার প্রভাব রিয়ালে খুবই স্পষ্ট। লা লিগায় বার্সেলোনার চেয়ে ১২ পয়েন্টে পিছিয়ে রয়েছে। চ্যাম্পিয়নস লিগের শেষ ষোলো থেকেই বিদায় নিয়েছে লস ব্লাঙ্কোসরা। মর্যাদার এল ক্লাসিকোতে বার্সার কাছে তুলোধুনো হচ্ছে রিয়াল।

আর্জেন্টিনার একটি রেডিয়োকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে রোনালদো সম্পর্কে এলএম ১০ বলে দিলেন, ‘আমি ক্রিস্টিয়ানোকে মিস করি। যদিও তাকে শিরোপা উঁচিয়ে ধরতে দেখাটা আমার জন্য কঠিন ছিল। তবে লা লিগাকে সে একটা মর্যাদা দিয়েছিল। লা লিগার মর্যাদা তার কারণে বেড়েছিল। জুভেন্টাসও ভালো ক্লাব। রোনালদো সেখানে যোগ দেওয়ায় তারা উয়েফা চ্যাম্পিয়নস লিগের শিরোপা জয়ের দাবিদার। অ্যাটলেটিকো মাদ্রিদের বিপক্ষের ম্যাচের পর তাদের আত্মবিশ্বাস আরো বেড়েছে।’

বার্সেলোনা তারকার এ হেন মন্তব্য বুঝিয়ে দেয়, মাঠের ভিতরে তাঁরা একে অপরের প্রবলতম প্রতিপক্ষ হলেও মাঠের বাইরে কিন্তু তাঁরা একে অপরের প্রতি গভীর শ্রদ্ধাশীল।

মন্তব্য: