ঢাকা প্রিমিয়ার লিগে মাশরাফি-আশরাফুল কাটিয়ে দিয়েছেন প্রায় দুই দশক। তবে এই লম্বা সময়ে প্রিমিয়ার লিগে কখনোই একই দলে খেলা হয়নি বাংলাদেশের এই দুই গ্রেটের। ক্যারিয়ারের প্রায় শেষ সীমায় পৌঁছে এবারই প্রথমবারের মতো একই দলে খেলছেন বিশ্বসেরা এই দুই ক্রিকেটার। শেখ জামাল ধানমন্ডি ক্লাবই প্রথমবারের মতো ঢাকা প্রিমিয়ার লিগে মাশরাফি-আশরাফুলকে এক সাথে একই দলে খেলার সুযোগ করে দিচ্ছে।

বাস্তব হলেও সত্য, একসময়ের এই দুই গ্রেটেরই প্রিমিয়ার লিগে দল পেতে কিছুটা বেগ পেতে হয়েছে এবার। নিজে যখন দল পাচ্ছিলেননা এমন অবস্থায় একদিন মাশরাফিকে ফোন দিলেন আশরাফুল। বললেন, ‘তোর যদি দল হয় আমার দিকেও একটু খেয়াল রাখিস।’ মাশরাফির শেখ জামাল ধানমন্ডি ক্লাবে নিশ্চিত হওয়ায় আশরাফুলের দুয়ারটা উন্মুক্ত হয়েছে আরেকটি কারণে।

বিসিবি এবছর সিদ্ধান্ত নিয়েছে প্রিমিয়ার লিগে বিদেশি ক্রিকেটারদের খেলার সুযোগ দিবেনা। যার ফলে কপাল খুলেছে আশরাফুলের মতো আরো অনেক দেশি ক্রিকেটারের। অনেক দিন ধরেই জাতীয় দলের বাইরে থাকা ৩৫ বছর বয়সী আশরাফুল দেশের একটি জাতীয় দৈনিককে বলেন, ‘শেখ জামালের অধিনায়ক সোহান (নুরুল হাসান) প্রথমে জানাল, দল তারা করে ফেলেছে। পরে বিদেশি ক্রিকেটার না করে দেওয়ায় টপ অর্ডারে একটা জায়গা তৈরি হয়েছে। মাশরাফিও ফোন দিয়ে বলল, দোস্ত চল, এবার আমরা এক দলে খেলি। বন্ধুর সঙ্গে একটা মৌসুম কাটাব, ভালো লাগছে। ২০ বছরের ক্যারিয়ারে প্রথমবার প্রিমিয়ার লিগ ক্রিকেটে ওর সঙ্গে খেলব, একটু অন্য রকম ভালো লাগা তো কাজ করেই।’

সম্প্রতি বাংলাদেশ ক্রিকেট লিগে (বিসিএল) খেলেছেন আশরাফুল। ব্যাট হাতে দারুন ফর্মে ছিলেন তিনি। ৩ ম্যাচ খেলে দুই ফিফটিতে করেছেন ২০২ রান। বিসিএলের আগে ৫০ দিনে ১২ কেজি ওজন কমিয়েছেন একসময়ের বাংলাদেশ ক্রিকেটের পোস্টারবয় খ্যাত মোহাম্মদ আশরাফুল। এবার তাঁর লক্ষ্য, প্রিমিয়ার লিগে ধারাবাহিকভাবে রান করা।

২০১৮ প্রিমিয়ার লিগে কলাবাগান ক্রীড়া চক্রের হয়ে রেকর্ড পাঁচ সেঞ্চুরি করেছিলেন তিনি। আশরাফুলের ভাষ্যমতে সে রেকর্ডে অবদান ছিল মাশরাফিরও। সেসময় আশরাফুল বলেছিলেন, বন্ধু মাশরাফির পরামর্শেই নাকি তিনি লীগের আগে ফিটনেস নিয়ে কাজ শুরু করে ছিলেন এবং যথেষ্ট উপকারও পেয়েছিলেন। আর এবারতো বন্ধুকে পাচ্ছেন একই ড্রেসিংরুমে। আশরাফুলের কাছে তো এবার একটু বেশি কিছু আশা করতেই পারে বাংলাদেশের আশরাফুল ভক্তরা।

মন্তব্য: